ঝিকরগাছায় বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রের আত্মহত্যা

আপডেট: 09:00:21 24/09/2021



img

স্টাফ রিপোর্টার: যশোরের ঝিকরগাছায় ইমরুল কায়েস পরাগ (২৩) নামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন।  
বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে দুইটার মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে বলে তার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।  
ইমরুল কায়েস পরাগ উপজেলার গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের বিশেহরি গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।
তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।  
স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে জানা যায়, ইমরুল কায়েস পরাগ একজন মেধাবী ছাত্র ছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি তিনি মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। এছাড়া বিয়েও করেছেন। তার স্ত্রী বর্তমানে বাবার বাড়িতে। পরাগ তার মায়ের কাছে একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা চান। ক্যামেরা দিতে দেরি হওয়ায় তিনি মায়ের ওপর অভিমান করেন। গেলরাত ১২টা পর্যন্তও তিনি রাতের খাবার খাননি। রাত দুইটার দিকে তার মা দেখেন, ছেলে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।
জানতে চাইলে গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ছেলেটা কেন যে আত্মহত্যা করেছে- তা জানতে পারিনি।  তবে, সম্প্রতি সে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। তার মা একটি বেসরকারি সংস্থায় (এনজিও) চাকরি করেন। শুনেছি ছেলেটি  তার মাকে একটি ক্যামেরা কিনে দিতে বলে। ক্যামেরা দিতে বিলম্ব হওয়ায় অভিমানে সে আত্মহত্যা করতে পারে।’
ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘ঘটনা জানতে পেরে সেখানে একজন অফিসারকে পাঠিয়েছি। কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন- অফিসার ফিরে না আসা পর্যন্ত জানা যাচ্ছে না।’

আরও পড়ুন