অভয়নগরে অবাধে কাঠ পুড়িয়ে তৈরি হচ্ছে কয়লা

আপডেট: 07:37:00 21/03/2021



img

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের অভয়নগর উপজেলার সিদ্ধিপাশা ইউনিয়নে প্রকাশ্যে কাঠ পুড়িয়ে কয়লা তৈরি করছে একটি চক্র। এতে করে উজার হচ্ছে এলাকার গাছপালা। স্থানীয়দের দাবি প্রশাসন সরব হলে বন্ধ করা সম্ভব অবৈধভাবে এ কয়লা উৎপাদন।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, অভয়নগর উপজেলার সিদ্ধিপাশা ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে রয়েছে কাঠকয়লা তৈরির চুল্লি। এই চুল্লিতে দেদারছে পোড়ানো হচ্ছে কাঠ। প্রতিনিয়ত ফলজ ও বনজ গাছ কেটে উজাড় করছে গাছপালা। সেই সাথে পরিবেশদূষণও করছে তারা।
উপজেলার সিদ্ধিপাশা ইউনিয়নের ধুলগ্রামের বাসিন্দা মজিদ হাওলাদারের ছেলে ফারুক হাওলাদার, সলেমান সরদারের ছেলে নকশেদ সরদার এবং সোনাতলার শামসুর মোল্লার দুই ছেলে জিয়া মোল্লা ও নুরু মোল্লা, সাবু মোল্লার ছেলে হারুন-অর-রশিদ, আব্দুল মজিদ হাওলাদারের ছেলে হাবিব হাওলাদারসহ আরও অনেকে এর সাথে জড়িত।
হারুন-অর-রশিদের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, এই এলাকায় প্রায় ৫০টির অধিক  চুল্লিতে কাঠ পুড়িয়ে কয়লা তৈরির কাজ চলছে। প্রতিটি চুল্লিতে গড়ে ১৫দিনে প্রায় ২৫০মণ কাঠ কয়লা তৈরির কাজে পুড়ছে।
স্থানীয় সূত্রগুলো জানিয়েছে, বেশ কিছু চুল্লি ভৈরব নদের তীরবর্তী এবং দুর্গম এলাকা হওয়ায় প্রশাসনের অভিযানের বাইরে থেকে যাচ্ছে। বাকি চুল্লিগুলোতে ইতোমধ্যে উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তর কয়েকদফা অভিযান চালিয়ে ভেঙ্গে ফেললেও পুনরায় আবার ওই চক্রটি সক্রিয় হয়ে উঠেছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, পরিবেশ দূষণের কারণে তারা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। কিন্তু অসাধু চক্রের ভয়ে মুখ খুলতে পারেন না। তাদের মতে, প্রশাসন যদি জোরালো কোনো ভূমিকা রাখে তাহলে হয়তো এই গাছ কেটে কয়লা তৈরি চিরতরে বন্ধ হয়ে যাবে।
এ বিষয়ে অভয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আমিনুর রহমান জানান, এ ধরণের অভিযোগ তার জানা নেই। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন