মণিরামপুরে সরকারি দপ্তরে পানি

আপডেট: 03:43:21 20/09/2021



img
img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি: রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকে মণিরামপুরে থেমে থেমে বৃষ্টি হয়েছে। এরপর রাত নয়টা থেকে সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) ভোর পর্যন্ত টানা ৮-১০ ঘণ্টার বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে উপজেলা পরিষদ চত্বরে। পানি ঢুকে পড়েছে উপজেলা মহিলা বিষয়ক দপ্তরের কর্মকর্তার কক্ষসহ আরেকটি কক্ষে। সেই পানি জমে ছিল সোমবার দুপুর পর্যন্ত।
এছাড়া উপজেলা খাদ্য গুদাম, জেলা পরিষদের বাংলো, উপজেলা পরিসংখ্যান দপ্তরের চত্বরেও পানি জমে থাকতে দেখা গেছে।
জলাবদ্ধতার কারণে নষ্ট হয়েছে মহিলাবিষয়ক দপ্তরের ইন্টারনেট সংযোগের রাউটারসহ মূল্যবান কাগজপত্র। অফিসে ঢুকতে না পেরে বাইরে বসে কাজ করছেন ওই দপ্তরের লোকজন।
এদিকে ভারি বর্ষায় মণিরামপুর পৌর এলাকার ফায়ার সার্ভিস দপ্তরের উত্তর পাশে কয়েকটি বাড়ির প্রবেশপথে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় বর্ষা মৌসুমে এই এলাকায় কয়েক বছর ধরে এভাবে পানি জমে থাকছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে এখানে বসবাসকারী পরিবারগুলোকে।
উপজেলা মহিলাবিষয়ক দপ্তরের নৈশপ্রহরী বায়েজিদ হোসেন বলেন, ‘রাতে অফিসের মেঝেতে বিছানা করে ঘুমিয়ে ছিলাম। রাত আড়াইটার দিকে পিঠ ভিজে যায়। তাড়াতাড়ি উঠে দেখি ঘর পানিতে ভরে গেছে। এরপর অফিসের মেঝেতে রাখা কাগজপত্র দ্রুত সরিয়ে ফেলি। ততক্ষণে প্রায় সব ভিজে নষ্ট হয়ে গেছে।’
যে অফিসটিতে পানি জমেছে আগে সেখানে উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তর ছিল। তখনও এখানে পানি জমতে দেখা গেছে। পরে নতুন ভবনে প্রকৌশলীর দপ্তর সরিয়ে নেওয়ায় মহিলাবিষয়ক দপ্তর এখানে স্থানান্তরিত হয়।
উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মৌসুমী আক্তার বলেন, ‘সকালে এসে দেখি পানিতে অফিস তলিয়ে গেছে। পানি বের হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। অফিসের মূল্যবান কাগজপত্র নষ্ট হয়েছে। ভেতরে বসতে না পেরে বাইরে বসে অফিসের কাজ করেছি।’
মণিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমা খানম বলেন, ‘খবর পেয়ে দ্রুত পানি সরানোর জন্য লোক পাঠিয়েছি। ইউএনও-র সাথে কথা বলে মহিলাবিষয়ক দপ্তর সরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।’

আরও পড়ুন