হিজড়া পরিচয় দিতে অনাগ্রহী পিংকি

আপডেট: 01:54:56 16/10/2019



img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের সাদিয়া আখতার পিংকি। পিংকি বাংলাদেশের প্রথম হিজড়া ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি।
নির্বাচিত হওয়ার পর তৃতীয় লিঙ্গের এই নারী তার জয়কে কোটচাঁদপুর উপজেলাবাসীর জন্য উৎসর্গ করে বলেন, ‘গরিব ও অসহায় নারীদের পাশে থাকতে চাই। এখন মাদকমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা করাই হবে আমার প্রধান কাজ। সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে থাকার একমাত্র স্থান হচ্ছে জনপ্রতিনিধি হওয়া। এখান থেকে খুব সহজেই মানুষের কাছে পৌঁছে যাওয়া যায়। কোটচাঁদপুরের মানুষ আমাকে অনেক ভালোবাসে।’
প্রতিক্রিয়ার এক পর্যায়ে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।
৩৭ বছর বয়সী পিংকি খাতুন দীর্ঘ তিন বছর ধরে কোটচাঁদপুর উপজেলা যুবমহিলালীগের আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। পিংকি জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার দোড়া ইউনিয়নের সোয়াদি গ্রামের নওয়াব আলীর কনিষ্ঠ সন্তান। প্রায় ২০ বছর আগে বাবা মারা যান। দুই ভাই, দুই বোনের সবার ছোট পিংকি। দুই ভাই কৃষি কাজ করেন। বড় বোন ও মাকে নিয়ে কোটচাঁদপুর শহরের বলুহর স্ট্যান্ড এলাকায় বসবাস করছেন তিনি।
১৪ সেপ্টেম্বর এ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ করা হয়। শেষ ধাপে অনুষ্ঠিত এ নির্বাচনে কোটচাঁদপুর উপজেলার সবক’টি কেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোটগ্রহণ করা হয়। নির্বাচনে পিংকি খাতুন ভোট পেয়েছেন ১২ হাজার ৮৮০টি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রুবিনা খাতুন পেয়েছেন ১২ হাজার ১৩৯ ভোট। এ পদে নাসিমা ইসলাম নামে আরো এক নারী অংশ গ্রহণ করেন।
পিংকি আরো জানিয়েছেন, তিনি একজন নারী। হিজড়া পরিচয়টা দিতে চান না।
‘আমি কখনো হিজড়াদের সাথে মিশে যাইনি। তবে, হিজড়াদের জন্য আমি কাজ করতে চাই। সমাজে হিজড়াদের ছোট চোখে দেখা হয়। তাই এই বৈষম্য রোধে কাজ করব।’
তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন বলে জানান তিনি।
পিংকি বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ আমার পছন্দ। দশ বছর ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে আছি। তিন বছর হলো কোটচাঁদপুর উপজেলা যুবমহিলালীগের আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। কোটচাঁদপুরের জনগণ যা চাইবে, সেটাই আমি করতে চাই।’

আরও পড়ুন