সিনহা হত্যাকারীদের তিন মাসের মধ্যে ফাঁসি দাবি

আপডেট: 09:07:45 05/08/2020



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : তিন মাসের মধ্যে দ্রুত বিচার আদালতের মাধ্যমে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যার বিচার সম্পন্ন ও দোষীদের ফাঁসি দাবি করেছে সশস্ত্র বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সংগঠন ‘রিটায়ার্ড আর্মড ফোর্সেস অফিসার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন’ (রাওয়া)।
আজ বুধবার বিকেলে রাওয়া’র হেলমেট হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা এই দাবি জানান।
সেইসঙ্গে পুলিশ বাহিনীকে সুশৃঙ্খল বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য জবাবদিহিমূলক আইন প্রণয়ন করে পুনর্গঠন করাসহ ১১টি দাবি জানানো হয়।
মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান (অব.) হত্যার বিচারের দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মেজর (অব.) খন্দকার নুরুল আফসার।
তিনি বলেন, ‘আমরা সুশৃঙ্খল বাহিনীর সদস্য। ইচ্ছে করলেই রাস্তায় নেমে উচ্ছৃঙ্খলা দেখাতে পারি না। কিন্তু এই বিষয়ে দাবি আদায় না হলে আমরা রাস্তায় নামতে বাধ্য হবো। উঁচু গলায় কথা বলবো। তিন বাহিনীর প্রাক্তন প্রধানদের নিয়ে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর কাছে গিয়ে বিচার দাবি করবো।’
এসময় সিনহা হত্যার বিচারের দাবি উত্থাপন করেন মেজর (অব.) খন্দকার নুরুল আফসার। দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে-
তিন মাসের মধ্যে দ্রুত বিচার আদালতের মাধ্যমে ন্যায়বিচার সম্পন্ন করতে হবে এবং দোষীদের ফাঁসি কার্যকর করতে হবে।
অনতিবিলম্বে সকল আসামিকে (তদন্তে যাদের নাম আসবে তারাসহ) মামলার স্বার্থে গ্রেফতার করে জেলহাজতে রাখতে হবে।
কক্সবাজার জেলার পুলিশ সুপারকে (এসপি) অনতিবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। এই ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করা, তথ্য গোপন করে মিডিয়াতে মিথ্যা বিবৃতি দেওয়া ও একমাত্র চাক্ষুস সাক্ষী সিফাতের বিরুদ্ধে দুটি কাল্পনিক ও বানোয়াট মামলা রুজু করার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
ওসি প্রদীপকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠাতে হবে।
সিফাত, ট্রাক চালকসহ সব সাক্ষীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অনুরূপ একটি ভিন্ন মন্ত্রণালয় (ভ্যাটারান মন্ত্রণালয়) গঠন করে সশস্ত্র বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সদস্যদের নিরাপদ ও আত্মমর্যাদাসম্পন্ন জীবনযাপনে সার্বিক সহায়তা করতে হবে।
সূত্র : মানবজমিন

আরও পড়ুন