সাইক্লোনে ঝিকরগাছায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

আপডেট: 06:57:01 21/05/2020



img
img

জেসমিন সুলতানা, ঝিকরগাছা (যশোর) : বুধবার রাতভর বয়ে যাওয়া সাইক্লোনে ঝিকরগাছায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
স্থানীয় নানা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১৭৯টি গ্রামের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া আম্পানে কয়েকশ’ কাঁচা ও আধা পাকা ঘর-বাড়ি, গাছপালা, কলাক্ষেত, পেঁপেক্ষেত, আম, কাঁঠাল ও লিচুর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামের বেসরকারি প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়, মল্লিকপুর পূর্বপাড়া জামে মসজিদ-সংলগ্ন ফোরকানিয়া মাদরাসা ও মক্তব, আমিনিয়া মসজিদ-সংলগ্ন মক্তব চালের ওপর গাছ পড়ে দুমড়ে-মুচড়ে পড়েছে। একই গ্রামের ঋষিপাড়া সর্বজনীন পূজামন্দিরের চাল উড়ে গেছে। এছাড়া ওই গ্রামের মৃত জহর খাঁর ছেলে আজম খাঁ, মৃত আমীর আলীর ছেলে বাক্কার, হোসেন আলীর ছেলে জহুরুল, স্বরুপের ছেলে আজিজ, মৃত সাত্তারের স্ত্রী জয়গুন, মহালদারপাড়ার নুরো ও মমিন উদ্দিন, গুচ্ছগ্রামের কালু, ফারুক হোসেন, রাজু আহম্মেদ, সকিম হোসেন, রবিউল ইসলাম, আবু হানিফ, টিপু সুলতান, হটাৎপাড়া এলাকার আজিজুর, রিপন হোসেন, রাফেজা খাতুন, বিল্লা ঘোষ, আব্দুল কাদের, কীর্তিপুর কমিশনারপাড়ার রবিউল ইসলামসহ অসংখ্য মানুষের ঘরবাড়ি ভেঙে ও চাল উড়ে গেছে। রাস্তার ওপরে গাছ উপড়ে পড়ে থাকায় হসপিটাল কবরস্থান রোড, কলেজ রোড, বুড়োর দরগাহসহ বিভিন্ন সড়ক বন্ধ রয়েছে।
ঝড়ের কারণে বিভিন্ন জায়গায় বিদ্যুৎ ও কেবল টিভি নেটওয়ার্কের তারের ওপর গাছপালা ভেঙে পড়ায় উপজেলার কোথাও বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে পারেনি বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ।
ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, প্রলয়ংকরী এই ঝড়ের সময় চাল উড়ে ও ঘরবাড়ি ভেঙে বিভিন্ন স্থানে অন্তত ১৫ নারী-পুরুষ ও শিশু আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। এরা হলেন আমেনা বেগম (৬০), রুবেল হোসেন (২৮), মাসুরা (২২), আনোয়ারা (৬০), শাওন (৬), হামিদ (১৯), আশুতোষ পাল (৫৫), ইদ্রিস আলী (৪৫), লিমন হোসেন (২২), ইমদাদুল হক (৭২) এবং আব্দুল্লাহ (৪০)।
গুরুতর আহতরা ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎিসা নিচ্ছেন। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
জানতে চাইলে লিলি কেবল টিভি নেটওয়ার্কের মালিক এনামুল হক ডন ও কেবল মিডিয়া নেটওয়ার্কের মালিক ইমামুল রাজিব সবুজ বলেন, তাদের একেক জনের আট থেকে দশ লাখ টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।

আরও পড়ুন