সংগ্রাম অফিস ভাঙচুর তালা, সম্পাদক হেফাজতে

আপডেট: 09:54:59 13/12/2019



img
img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : মানবতাবিরোধী অপরাধে ফাঁসির দণ্ড কার্যকর হওয়া কাদের মোল্লাকে ‘শহীদ’ বলার প্রতিবাদে দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকা অফিসের ভেতরে ভাঙচুর করেছেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা। শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার দিকে সংগ্রামের অফিসে ভাঙচুর চালানো হয়। এরপর পত্রিকা অফিসের গেটে তালা লাগিয়ে দেন তারা। 
সরেজমিন দেখা গেছে, পত্রিকা অফিসের কম্পিউটার, দরজা, জানালা, চেয়ার, টেবিল ও সম্পাদক আবুল আসাদের কক্ষে ভাঙচুর চালিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা। এরপর তারা গেটের বাইরে সংগ্রাম পত্রিকায় আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন। অফিসে ভাঙচুরের একপর্যায়ে সম্পাদক আবুল আসাদকে হাতিরঝিল থানা পুলিশ নিজেদের হেফাজতে নিয়ে নেয়।
সংগ্রামে কর্মরত সাংবাদিকরা জানান, বাইরে বিক্ষোভের একপর্যায়ে তারা জোর করে অফিসের ভেতরে ঢুকে পড়েন। কক্ষগুলোতে ভাঙচুর চালায়। এরপর সম্পাদককে তার রুমের বাইরে এনে টিভি সাংবাদিকদের ক্যামেরার সামনে দাঁড় করিয়ে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে বলে। তখন তিনি ‘শহীদ’ শব্দটি ব্যবহারের জন্য দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমা চান।
মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাহমুদ বলেন, ‘আমরা অফিসের ভেতরে জামায়াত ও শিবির পরিচালনার নানা কাগজ পেয়েছি। এসব দেখে নিয়মতান্ত্রিকভাবে পত্রিকার সম্পাদককে আমরা পুলিশে দিয়েছি।’
মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল বলেন, ‘স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবিরের মুখপত্র দৈনিক সংগ্রাম গতকাল (১২ ডিসেম্বর) কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী কসাই কাদের মোল্লাকে শহীদ আখ্যা দিয়ে প্রথম পাতায় সংবাদ পরিবেশন করেছে। মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ এমন ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। যুদ্ধাপরাধ মামলায় ফাঁসির সাজাপ্রাপ্ত রাজাকার কাদের মোল্লার পক্ষে অবস্থান নেওয়ার অপরাধে সম্পাদক আবুল আসাদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।’
ডিএমপির তেজগাঁও জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার হাফিজ আল ফারুক বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থলে রয়েছি। কারা এই কাজ করেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’
সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন

আরও পড়ুন