শৈলকুপায় ট্রাকচাপায় নসিমনের অন্তত ছয় যাত্রী নিহত

আপডেট: 12:04:48 14/01/2021



img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : ঝিনাইদহে শৈলকুপায় ট্রাক ও ইঞ্জিনচালিত নসিমনের মুখোমুখী সংঘর্ষে ছয় ইমারত শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ছয়জন। তবে স্থানীয়রা বলছেন, হতাহতের সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে।
বুধবার (১৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে উপজেলার এক নম্বর ত্রিবেণী ইউনিয়নের মদনডাঙ্গা বাজারের শ্রীরামপুর বাসস্ট্যান্ডে দুর্ঘটনাটি ঘটনা ঘটে। হতাহত সবাই নির্মাণশ্রমিক ছিলেন। তাদের সবার বাড়ি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কল্যাণপুর এলাকায় বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। খবর পেয়ে ঝিনাইদহ ও শৈলকুপা ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ সুপারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নেন। তারাও বলছেন, নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।
প্রত্যক্ষদর্শী নাজমুল হাসান সাগর নামের এক স্কুলশিক্ষক জানান, হতাহতরা সবাই ইমারত শ্রমিক। বুধবার সন্ধ্যায় কাজ শেষে একটি ইঞ্জিনচালিত নসিমনে তাদের খোয়া, বালি ও সিমেন্ট মিকচার মেশিন তুলে ঝিনাইদহের দিকে যাচ্ছিলেন। ওই নসিমনে ১৩ শ্রমিক গাদাগাদি করে উঠেছিলেন। মদনডাঙ্গা বাজারে বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুতগতির একটি ট্রাক তাদের নসিমনে ধাক্কা দিয়ে পাশের খাদে উল্টে পড়ে। এসময় বিকট শব্দে আশপাশের লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। স্থানীয়রা দ্রুত দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে সবাইকে যততত্র পড়ে থাকতে দেখেন। অনেকের শরীর থেকে হাত ও পা বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ছিল। খবর পেয়ে শৈলকুপা ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।
রাত আটটায় দুর্ঘটনাস্থলে উপস্থিত স্থানীয় নয় নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার আজাদ হোসেন জানান, এখনো পর্যন্ত ছয়জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।
দুর্ঘটনাস্থলে উপস্থিত শৈলকুপা থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন হতাহতের ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, 'আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছি।' তবে নিহতের সংখ্যা নিশ্চিত করতে পারেননি তিনি।
ফায়ার সার্ভিস ঝিনাইদহের উপ-সহকারী পরিচালক শামীমুল ইসলাম নিহতের সংখ্যা ছয় বলে জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন