লবণকাণ্ডে যশোরে দুই দোকানিকে জরিমানা

আপডেট: 12:30:15 20/11/2019



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : গুজবের কারণে হঠাৎ করে যশোরে লবণ বিক্রি বেড়ে গেছে। দুপুরের পর থেকে লবণ বিক্রির পরিমাণ বাড়তে থাকে। যশোরের বাজারে রাতেও লবণ কিনতে ক্রেতাদের ব্যাপক ভিড় দেখা গেছে।
এদিকে, লবণ বিক্রি বেড়ে যাওয়ায় দোকানিরাও ইচ্ছেমতো দাম বাড়িয়ে দেন। বিষয়টি জানতে পেরে ভ্রাম্যমাণ আদালত যশোরের দুটি প্রতিষ্ঠানকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।
আদালতের পেশকার শেখ জালালউদ্দিন সুবর্ণভূমিকে জানান, যশোরের এনডিসি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী নাজিব হাসান রাতে শহরের জেল রোড এলাকায় ‘ভাই ভাই স্টোর’ ও পুরাতন কসবা চুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড বাজারের সোহরাবের দোকানে অভিযান চালান। সেখানে লবণের অতিরিক্ত দাম নেওয়ায় তাদের যথাক্রমে দশ হাজার ও এক হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন।
বাজারে লবণ কিনতে আসা জামাল, সখিনা, মোক্তার শেখসহ কয়েকজন জানান, সন্ধ্যায় শোনা যায়, আগামীকাল থেকে লবণের দাম ২০০ টাকা করে হবে। এজন্যে তারা তড়িঘড়ি বাজারে আসেন লবণ কিনতে। আজ সন্ধ্যায় তারা ৬০ থেকে ৭৫ টাকা দরে এক কেজি করে লবণ কিনেছেন।
বিক্রেতারা বলছেন, গুজবের কারণে লবণ বিক্রি বেড়ে গেছে। লবণ দিতে রাজি না হলে ক্রেতারা চাপাচাপি করছেন বলে অভিযোগ করেন তারা। তবে লবণের দাম বাড়েনি ও সংকট নেই। শুধু গুজবের কারণে মানুষ বেশি বেশি লবণ কিনছেন বলে জানান বিক্রেতারা।
লবণের কেন বেশি দাম নিচ্ছেন- এমন প্রশ্নে ব্যবসায়ী নিলয় কুণ্ডু, কামালউদ্দিন, শম্ভুনাথসহ বেশ কয়েকজন জানান, তারা বেশি দামে বিক্রি করেননি। এখন অবশ্য তাদের কাছে লবণ নেই।
এদিকে, গুজবে কান না দিতে বাজারে নেমে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তারা মানুষকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছেন।
যশোর কোতয়ালী থানার এসআই শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়কে সচেতন করছি। যেহেতু লবণের কোনো সঙ্কট নেই, সেকারণে তারা যেন বেশি দামে কেনাবেচা না করে। কোনো দোকানি বেশি দামে লবণ বিক্রি করলে তাদের পুলিশে খবর দিতে অনুরোধ করা হয়েছে।’

আরও পড়ুন