রাষ্ট্রায়ত্ত সব পাটকল বন্ধ ঘোষণা

আপডেট: 01:27:24 03/07/2020



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এখন শ্রমিকদের পাওনা টাকা সরাসরি তাদের অ্যাকাউন্টে দেওয়া হবে।
বৃহস্পতিবার সকালে গণভবনে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সংবাদ ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস এসব তথ্য জানান।
দেশে ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল রয়েছে।
মুখ্য সচিব বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর আধুনিকায়ন ও রিমডেলিংয়ের জন্য উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শ্রমিকদের শতভাগ পাওনা বুঝিয়ে দেওয়া হবে। শ্রমিকদের পাওনা বুঝিয়ে দিতে পাঁচ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
ড. আহমদ কায়কাউস বলেন, শ্রমিকদের আরো দক্ষ করতে প্রশিক্ষণ দেবে সরকার। পরবর্তীতে এ কারখানাগুলো পুনরায় চালু হলে নিয়োগের ক্ষেত্রে বর্তমান শ্রমিকদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।
এক প্রশ্নের জবাবে মুখ্য সচিব বলেন, পাটকল শ্রমিকরা এতোদিন ঠিকমতো তাদের পাওনা পেতো না। এখন তাদের সব পাওনা বুঝিয়ে দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, মূলত শ্রমিকদের সুরক্ষার জন্য ৫০ শতাংশ পারিবারিক সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে দেওয়া হবে। এতে শ্রমিকরা এখন যে অবস্থায় আছেন তার চাইতে বেশি ভালো থাকবেন।
সরকার সম্প্রতি রাষ্ট্রের মালিকানায় আর পাটকল রাখবে না বলে সিদ্ধান্ত নেয়। রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো বন্ধ করে পরে পিপিপি'র মাধ্যমে এগুলো চালানো হবে।
এরই মধ্যে এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করে আন্দোলনে নেমেছেন পাটকল শ্রমিকরা। বামপন্থী বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও শ্রমিক সংগঠনও গত কয়েকদিন ধরে প্রতিবাদ করছেন এই সিদ্ধান্তের। দেশের অন্যতম বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপিও রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে বক্তব্য দিয়েছে।
সূত্র : যুগান্তর

আরও পড়ুন