যশোরে শনাক্তদের মধ্যে শহরের বাসিন্দাই বেশি

আপডেট: 02:43:03 10/09/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টারে বৃহস্পতিবার যশোর জেলার যে ৩৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন, তাদের মধ্যে যশোর শহরসহ সদর উপজেলাতেই আছেন ৩২ জন। অন্য তিনজনের মধ্যে শার্শা, ঝিকরগাছা ও অভয়নগর উপজেলার একজন করে রয়েছেন।
সদর উপজেলায় আক্রান্তরা হলেন জেল রোডের মো. শাহ আলম (৫৬), পুলিশ লাইনের প্রতীক (১২), মো. আব্দুল হামিদ (৫৩), নিরজা (৫), নিমনি নিশরাত (১৩), মনিরুজ্জামান (৪৫) ও সুজিত কুমার মৃধা (৩৮), উপশহরের আরিফুল (২৬), চাঁচড়ার শাহিদা (৫৬), স্টেডিয়ামপাড়ার মো. আসাদুর রহমান (৫২), শেখহাটির গোলাম রব্বানী (৫৫) ও আঞ্জুমান আরা (৫৫), এড়েন্দার ডালিম (৪৫), বিরামপুরের মিজানুর (৪৮) ও তানিয়া (২২), ঘোপের নজরুল (৪৫), রোকেয়া খাতুন (৩২) ও ফারুক (৩৬), জেনারেল হাসপাতালের কর্মচারী মকলেসুর রহমান (৩৫) ও আসমা (২৭), খিতিবদিয়ার আমিরুল ইসলাম (৪৫), বসুন্দিয়ার মহিউদ্দিন (৩৯), বারান্দীপাড়ার আব্দুস শুকুর (৭০), রেলগেটের সিরাজুল (৪৮), বেজপাড়ার অতশী (৩০), মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের রাশিদা খাতুন (৪২) এবং গণপূর্ত অফিসের ইউসুফ (৫৭)।
এছাড়া সদরে নমুনা প্রদানকারী ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কুচিয়া গ্রামের রাসেল (২৮) ও কুল্লাপড়ার মো. দারু হোসাইন খান (৬০), চৌগাছা উপজেলার যাত্রাপুরের আনোয়ার জাহিদ (৩০), শার্শা উপজেলার নাভারনের মহসিন (৫৫), মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার সিংড়া গ্রামের রমেশ (৫৭)-এর শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।
আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন শার্শা বাজারের মুশেকা বেগম (৫০), ঝিকরগাছা উপজেলার নওয়াপাড়া হালসার মো. আসাদুল হক (৩৯) এবং অভয়নগর উপজেলার গুয়াখোলা ছয় নম্বর ওয়ার্ডের নিশাত সুকতানা (৬১)।

আরও পড়ুন