মাউশি উপ-পরিচালকের স্বামীকে গলা কেটে হত্যা

আপডেট: 12:31:21 24/10/2020



img

খুলনা অফিস : মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর খুলনা অঞ্চলের উপ-পরিচালক নিভারানী পাঠকের স্বামী অবসরপ্রাপ্ত বেসরকারি কলেজের শিক্ষক অরুণ রায়কে (৭২) দুর্বৃত্তরা গলা কেটে হত্যা করেছে।
নড়াইল সদর উপজেলার বেনাহাটি গ্রামে নিজ বাড়িতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) রাত আটটার দিকে হত্যার বিষয়টি জানাজানি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে।
গ্রামবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, অবসরপ্রাপ্ত কলেজশিক্ষক অরুণ রায় সদর উপজেলার তুলারামপুর ইউনিয়নের বেনাহাটি গ্রামে একা বসবাস করতেন। তার এক ছেলে প্রকৌশলী এবং এক মেয়ে চিকিৎসক। চাকরির সুবাদে স্ত্রী ও ছেলে-মেয়ে জেলার বাইরে অবস্থান করতেন। তারা মাঝে মাঝে ছুটিতে বাড়িতে আসতেন। শুক্রবার সারাদিন অরুণ রায়ের কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে সন্ধ্যার পর নিভারানী পাঠক ও তার ছেলে ইন্দ্রজিৎ রায় বাড়িতে এসে মই বেয়ে দ্বিতল ভবনের দরজা ভেঙে ঘরে ঢোকেন। তারা চেয়ারের ওপর গলা কাটা অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেন। এলাকাবাসী জানান, অরুণ রায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি চায়ের দোকান থেকে চা পান করেছেন বলে অনেকেই দেখেছেন। তারা ধারণা করছেন, রাতে দুর্বৃত্তরা বাড়ির দোতলায় উঠে গলা কেটে হত্যা করেছে অরুণকে।
এলাকাবাসীর মতে, অত্যন্ত ভদ্র প্রকৃতির মানুষ ছিলেন অরুণ রায়। তুলারামপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বুলবুল আহম্মেদ বলেন, বাড়িতে অরুণ রায় একাই থাকতেন। এ ঘটনা গত রাতে ঘটতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
নড়াইল সদর থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন বলেন, 'খবর পেয়ে রাত আটটার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। দুর্বৃত্তরা গলা কেটে হত্যা করেছে ওই শিক্ষককে। কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে- সে ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। মৃতদেহের সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

আরও পড়ুন