মহেশপুরে জমির বিরোধে মেহগনিগাছ সাবাড়

আপডেট: 05:44:26 18/01/2020



img

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : মাঠের জমি কেনার ক্ষেত্রে দেখা দিয়েছে বিরোধ। আর সে কারণে জমিতে লাগানো মেহগনিগাছগুলো একেবারেই প্রকাশ্য দিবালোকে কেটে সাবাড় করা হলো।
শুক্রবার সকালে মহেশপুর উপজেলার বাঁশবাড়ীয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। সেখানে জাহাঙ্গীর কবীর মিঠু নামে এক ব্যক্তির জমিতে লাগানো মেহগনিগাছগুলো বাঁশবাড়ীয়া গ্রামের আব্দুল জলিল নামে একজন কেটে ফেলেন।
গ্রামের শাহাজামাল নামে এক ব্যক্তি জানান, সাত বছর আগে জাহাঙ্গীর কবীর মিঠু জমিটি কেনেন। পরে ওই জমিতে মেহগনিগাছ লাগানো হয়। শুক্রবার সকালে বাঁশবাড়ীয়া গ্রামের আজুব্বরের নির্দেশে একই গ্রামের আব্দুল জলিল সবকটি গাছ কেটে দেন।
জাহাঙ্গীর কবীর মিঠু বলেন, ‘গ্রামের আবু বক্করের কাছ থেকে জমিটি কিনেছিলাম। কিন্তু আব্দুল জলিল জমিটি কিনতে না পেয়ে প্রতিহিংসার কারণে আমার জমিতে লাগানো গাছগুলো কেটে দিলো।’
বাঁশবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক বলেন, ‘আমি লোকমুখে গাছ কাটার খবর শুনেছি। তবে জমি নিয়ে দুই পক্ষের একটু ঝামেলাও রয়েছে।’
তিনি আরো বলেন, জমি নিয়ে ঝামেলা থাকতেই পারে। সেটা দুই পক্ষ বসলেই সমাধান সম্ভব। কিন্তু জমিতে লাগানো গাছগুলো কেটে ফেলা ঠিক হয়নি।
জমির গাছ কাটার ঘটনায় জাহাঙ্গীর কবীর মিঠুর ছোট ভাই আলমগীর কবির মহেশপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এতে আব্দুল জলিলকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন