মণিরামপুরে ফের বাড়ছে পেঁয়াজের দাম

আপডেট: 02:11:49 14/10/2019



img

আনোয়ার হোসেন, মণিরামপুর (যশোর) : সপ্তাহজুড়ে দাম কিছুটা কম থাকলেও মণিরামপুরে আবার অস্থির হয়ে উঠেছে পেঁয়াজের বাজার।
যে পেঁয়াজ ৪-৫ দিন আগেও কেজি প্রতি বিক্রি হয়েছে ৬৫-৭০ টাকা, সেই তার দর ২০-২৫ টাকা বেড়ে এখন দাঁড়িয়েছে ৮০-৯০ টাকায়। আবার গ্রাম এলাকার কোনো কোনো বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ১০০ টাকা করে।
পেঁয়াজের বাজারে এই অস্থিরতা বেশ কিছুদিন ধরে চললেও দাম নিয়ন্ত্রণে এখানে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো উদ্যোগ এই পর্যন্ত চোখে পড়েনি। ফলে পাইকারি বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য না রেখে নিজেদের ইচ্ছেমতো দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন খুচরা বিক্রেতারা। ফলে হাতেগোনা কিছু অসাধু কারবারির কারণে মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্তের মানুষেরা কষ্টে পড়েছেন।
রোববার রাতে ও সোমবার সকালে সরেজমিন মণিরামপুর খুচরা কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০-৯০ টাকায়; যা এক সপ্তাহ আগেও ছিল ৬৫-৭০ টাকা। আর পাইকারি বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৭৫ টাকা দরে; যা সপ্তাহ আগেও ছিল ৬০ টাকা। এছাড়া উপজেলার নেহালপুর, রাজগঞ্জ ও টেংরামারী বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে বলে সেখানকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন।
কথা হয় ক্রেতা কোহিনুর বেগমের সঙ্গে। তিনি সুবর্ণভ‚মিকে বলেন, যে পেঁয়াজ এক সপ্তাহ আগে ৭০ টাকা করে কিনেছি, আজ তা কিনলাম ৯০ টাকা দিয়ে।
আর তাজাম্মুল হোসেন নামে এক ক্রেতা জানান, তিনি শনিবার রাতে ৮০ টাকা দিয়ে এক কেজি পেঁয়াজ কিনেছেন।
একাধিক ক্রেতা জানান, বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির প্রভাবে মাঝে কয়েকদিন দাম কিছুটা কমেছিল। এখন আবার বাড়তির দিকে। বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান নেই বলে এমনটি হচ্ছে বলে মনে করেন ক্রেতারা।
তাদের অভিযোগ, বিভিন্ন উপজেলায় আদালতের অভিযান দেখা গেলেও মণিরামপুর বাজারে এই পর্যন্ত তা দেখা যায়নি। তাই দোকানিরা ইচ্ছেমতো দামে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন।
বাজারের খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতা শওকত আলী বলেন, ‘পাইকারি ৮৫ টাকা করে কেজি প্রতি পেঁয়াজ কিনতে হয়েছে। এখন ৯০ টাকা কেজি বিক্রি করছি।’
অপর ব্যবসায়ী নয়ন হোসেন জানান, কোনো কারণ ছাড়াই আবার পেঁয়াজ কেজিতে দশ টাকা করে বেড়েছে। প্রতিদিন কেজিপ্রতি পাঁচ টাকা করে বাড়ছে।
মণিরামপুর পাইকারি কাঁচাবাজারে পেঁয়াজের বড় ব্যবসায়ী শিপন হোসেন বলেন, ‘বাইরে থেকে যে পেঁয়াজ ঢুকেছে তার মান ভালো ছিল না। এখন পেঁয়াজ ঢোকা বন্ধ রয়েছে। তাই আবার দাম বেড়েছে। প্রতি কেজি পেঁয়াজ এখন বিক্রি করছি ৭৫ টাকা করে। এক সপ্তাহ আগে যা বিক্রি করেছি ৬০-৬২ টাকায়।’
মণিরামপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইয়েমা হাসান বলেন, ‘পেঁয়াজের দাম নিয়ে কেউ আমাদের কাছে অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে অভিযান শুরু হবে।’
ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী বলেন, পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি মাথায় আছে। দ্রুত অভিযান পরিচালনা করা হবে।

আরও পড়ুন