মণিরামপুরে একদিনে সর্বাধিক ১৩ করোনা রোগী শনাক্ত

আপডেট: 08:16:30 10/07/2020



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুরে একদিনে ১৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে; যা এযাবৎকালের সর্বাধিক।
শুক্রবার (১০ জুলাই) সকালে ও বিকেলে যশোর সিভিল সার্জন অফিস থেকে পৃথকভাবে এই তথ্য জানানো হয়।
আক্রান্তদের মধ্যে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার (সেকমো), মণিরামপুর পৌরশহরের মাধ্যমিক স্তরের এক স্কুলশিক্ষক, ব্র্যাকের কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসের এক স্টাফ রয়েছেন।
মণিরামপুর উপজেলা স্বস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. অনুপকুমার বসু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
ডা. বসু বলেন, গত বুধবার (৮ জুলাই) মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে ১২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় জেনোম সেন্টারে পাঠানো হয়। আজ (শুক্রবার) সকালে তাদের মধ্যে
চারজনের ও ঢাকা থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজের মাধ্যমে নয়জনের পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে। ঢাকা থেকে পজেটিভ রিপোর্ট আসা ব্যক্তিরা বেশ আগে বিভিন্ন হাসপাতালে নমুনা দিয়েছিলেন।
শুক্রবার নতুন পজেটিভ রিপোর্ট আসা ১৩ জনের মধ্যে রয়েছেন মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার (সেকমো) ইফতেখার রসুল, মণিরামপুর শহরের একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মনিরুজ্জামান মনির, উপজেলা ব্র্যাক অফিসের কর্মকর্তা বিনয় অধিকারী, উপজেলা শিক্ষা অফিসের স্টাফ তাসলিমা বেগম। এছাড়া অন্যরা পৌর এলাকার গাংড়া, মণিরামপুর, মোহনপুর, তাহেরপুর, কামালপুর, সালামতপুর, দেবীদাসপুর এবং কেশবপুর এলাকার বাসিন্দা।
আক্রান্তদের মধ্যে একজন এক সপ্তাহ ধরে মণিরামপুর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি আছেন। বাকিরা নিজ নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউনের জন্য প্রশাসনকে তালিকা পাঠানো হয়েছে বলে জানান ডা. বসু।
করোনা পরীক্ষার জন্য বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে ৩৪৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এছাড়া যশোর জেনারেল হাসপাতাল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এই অঞ্চলের অনেকেই নমুনা দেন। এই পর্যন্ত এই উপজেলায় ৫৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে; যাদের ৩২ জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

আরও পড়ুন