ভাড়ার নয়, নিজের ভ্যান চালাবেন প্রতিবন্ধী মাসুদ

আপডেট: 02:26:28 20/01/2021



img

রূপক মুখার্জি, লোহাগড়া (নড়াইল) : স্বপ্ন পূরণ হলো লোহাগড়ার প্রতিবন্ধী ভ্যানচালক মাসুদের। ভাড়ায় চালিত নয় নিজের ভ্যান চালিয়ে সংসারের হাল ধরবেন সংগ্রামী এ যুবক। তার সংগ্রামে সারথী হয়েছেন লোহাগড়া পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলাম সুমন।
গত জানুয়ারি ভ্যানের চাকায় স্বপ্ন বুনছেন প্রতিবন্ধী মাসুদ শিরোনামে অনলাইন নিউজ পোর্টাল সুবর্ণভূমিতে সংবাদ প্রকাশ হয়। যেখানে ভাড়ায় চালিত নয় নিজের ভ্যান চালিয়ে সংসারের হাল ধরতে সমাজের বিত্তবানদের সহায়তা কামনা করেছিলেন।   
নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার চাচই গ্রামের মধ্যপাড়ায় চার শতক জমির ওপর পাটখড়ি ও পলিথিনে মোড়ানো ছোট ঘরে বসবাস করেন প্রতিবন্ধী মাসুদসহ তার পরিবার। তার পিতা বাকা মোল্লা ও মাতা মনোয়ারা বেগম মারা গেছেন অনেক আগেই। প্রতিদিন সকালে না খেয়ে তিন চাকার একটি ভাড়ায় চালিত মোটরভ্যান নিয়ে যাত্রীর খোঁজে বেরিয়ে পড়েন মাসুদ। অনেক সময় যাত্রীরা তাকে দেখে তার ভ্যানে উঠতে চান না। কারণ মাসুদের দুটি পা অকেজো।  সারাদিন ভ্যান চালিয়ে মাসুদ তিন থেকে চারশ’ টাকা উপার্জন করে তিন সদস্যের সংসারের খরচ এবং একমাত্র ছেলের লেখাপড়ার খরচ চালান। দিন শেষে ভ্যান মালিককে ভাড়া বাবদ গুনতে হয় ১৬০ টাকা। প্রতিবন্ধী মাসুদ শত প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও একমাত্র ছেলে রাজু মোল্লার পড়াশোনার খরচ চালিয়ে যাচ্ছেন। তার ছেলে বর্তমানে লোহাগড়া সরকারি কলেজে এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যয়নরত। মাসুদের স্বপ্ন তার ছেলে লেখাপড়া শিখে একদিন অনেক বড় হবে। উপার্জন করবে, সংসারের হাল ধরবে। কিন্তু সেই সন্তানকে উপযুক্ত করতে যে টাকা দরকার তা ভাড়ায় চালিত ভ্যান চালিয়ে উপার্জন সম্ভব নয়। এজন্য তিনি সমাজের বিত্তবানদের সহায়তা কামনা করেছিলেন।
অবশেষে তার স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে আসেন লোহাগড়া পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলাম সুমন। মাসুদকে তিনি কিনে দিয়েছেন একটি ব্যাটারি চালিত নতুন ভ্যান। ভ্যান পেয়ে যারপরনাই খুশি মাসুদ।
এ ব্যাপারে কথা হয় মাসুদের সাথে। তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে মহান আল্লাহ তায়ালার অশেষ শুকরিয়া আদায় করে বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় ৪০ হাজার টাকা মূল্যের নতুন ব্যাটারি চালিত ভ্যানটি তাকে কিনে দিয়েছেন জয়পুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. শরিফুল ইসলামের ছেলে যুবলীগ নেতা মো. সাইফুল  ইসলাম সুমন।  তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের ধন্যবাদের পাশাপাশি সুমনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করেছেন। একইসাথে সন্তানকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত কার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
লোহাগড়া পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলাম সুমন বলেন, 'একটি ভালো কাজ করতে পেরে আমিও খুশি। সামাজিক দায়বদ্ধতার বিষয়টি মাথায় রেখে মানবিক এসব কাজে সকলের এগিয়ে আসা উচিৎ। এতে করে অনেক পরিবার কিছুটা হলেও উপকৃত হবে।'

আরও পড়ুন