বোরোক্ষেতে ইঁদুরের উৎপাতে দিশেহারা কৃষক

আপডেট: 02:44:50 22/03/2021



img

আনোয়ার হোসেন,মণিরামপুর : যশোরের মণিরামপুরে দিগন্ত জুড়ে বাতাসে দুলছে সবুজ ধানক্ষেত। ধানগাছের আগা চিরে উঁকি দিচ্ছে শীষ। সন্তানের মত রাতদিন কষ্ট করে ধানের যত্ন নিচ্ছেন কৃষক। আর মাসখানেক পরেই সোনালী স্বপ্ন গোলায় তুলতে সব রকম চেষ্টা তাদের। এরইমধ্যে কৃষকের স্বপ্ন ফিকে করে দিচ্ছে ইঁদুর। অন্যবারের তুলনায় চলতি মৌসুমে বোরোক্ষেতে ইঁদুরের উৎপাত বেড়েছে ব্যাপকহারে। ধানগাছে থোড় (শীষ) বের হওয়ার মুহুর্তে ইঁদুরের উৎপাত বাড়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন এই অঞ্চলের হাজার হাজার কৃষক। নিজ উদ্যোগে নানা কৌশল প্রয়োগ করে ফল পাচ্ছেন না তারা। কৃষকদের অভিযোগ, ইঁদুরের উৎপাতে ক্ষেত নষ্ট হলেও কৃষি অফিসের কোন পরামর্শ পাচ্ছেন না তারা। প্রত্যেক এলাকায় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা দায়িত্বে থাকলেও তারা কৃষকদের দুর্দিনে খোঁজ রাখছেন না বলে অভিযোগ।
উপজেলার চালুয়াহাটি, রোহিতা ও খেদাপাড়া ইউপির বেশ কয়েকজন বোরো চাষীর সাথে কথা বলে এমন তথ্য মিলেছে। তবে উপজেলাজুড়ে অধিকাংশ বোরো চাষী ইঁদুরের উৎপাতের শিকার।
মোবারকপুর গ্রামের নারী চাষী সুফিয়া বেগম। অন্যের জমি বর্গা নিয়ে ২০ শতক জমিতে বোরো চাষ করেছেন। নিত্য ইঁদুর তার জমির ধানগাছ গোড়া থেকে কেটে দিচ্ছে।
ওই মাঠের কৃষক তরিকুল ইসলাম বলেন, তিনি দুই বিঘা জমিতে বোরো চাষ করেছেন। ২০-২৫ দিন ধরে ইঁদুর ধান গাছের গোড়া থেকে কেটে দিচ্ছে। নানা কৌশল করেও ক্ষেত রক্ষা করতে পারছি না। ক্ষেত ডুবিয়ে পানি দিচ্ছি। তারপরও পানির উপরে দাঁড়িয়ে ইঁদুর ধানগাছ কেটে দিচ্ছে।
তরিকুলের দাবি,২৫-৩০ বছর ধরে তিনি ধান চাষ করছেন। এবারেরমত ইঁদুরের উৎপাত আগে দেখেননি।
একই মাঠের রবিউল ইসলাম বলেন, দুই বিঘা জমির ধান নিয়ে বিপাকে আছি। ইঁদুরের হাত থেকে ধান বাঁচানো যাচ্ছে না। কৃষি অফিসাররা আমাদের ক্ষেতে আসেন না। যারা বড় চাষী তাদের সাথে কথা বলে চলে যান।
এছাড়া মোবারকপুর মাঠের অসিম বিশ্বাস, আকছেদ খাঁ, ইকবাল হোসেন ও শরিফুল ইসলাম, টেংরামারী বিলের কৃষক নুর আলম কালু, রঘুনাথপুর মাঠের কৃষক ভুট্ট, পট্টি গ্রামের ইসমাইল হোসেন, আসের উদ্দিন, মিন্টু হোসেন, সরণপুর গ্রামের বাবুল হোসেন, আলম হোসেন ও নওশাদ আলীসহ বহু কৃষক ইঁদুরের উৎপাতে অতিষ্ঠ।
টেংরামারী বিলের কৃষক নুর আলম কালু বলেন, চারবিঘা জমির বোরোক্ষেতে ইঁদুর খুব ক্ষতি করছে। কোন ওষুধে কাজ হচ্ছে না। তবে গমের সাথে মিশানো ওষুধ প্রয়োগ করে কিছুটা উপকার পেয়েছেন ভুট্ট নামে রঘুনাথপুর গ্রামের ধান চাষী।
মণিরামপুরে চলতি মৌসুমে রেকর্ড পরিমান বোরো চাষ হয়েছে। আমনের দাম ভাল পাওয়ায় কৃষকরা অন্য ফসল ছেড়ে এবার বোরো চাষে ঝুঁকেছেন বেশি। উপজেলা কৃষি অফিসের সূত্রমতে, এবার ২৭ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষ করেছেন কৃষক। যা অন্যবারের তুলনায় অনেক বেশি।
মণিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হীরক কুমার সরকার বলেন, ইঁদুরে ধানগাছের ক্ষতি করার খবর পাচ্ছি। আমাদের উপ-সহকারীরা খোঁজ রাখছেন।
তিনি বলেন, ইঁদুরের গর্তে ধোয়া বা গ্যাস ট্যাবলেট দিয়ে, ক্ষেত ডুবিয়ে পানি রেখে, কাকতাড়ুয়া স্থাপন করে এবং বিভিন্ন কোম্পানির তৈরি বিষটোপ ব্যবহার করলে কৃষক উপকৃত হবেন।

আরও পড়ুন