বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা

আপডেট: 02:21:48 21/05/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার : দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৬ জন। এ নিয়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৮৬-তে।
গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে এক হাজার ৬১৭ করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এটি এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ শনাক্ত।
এর আগে গত ১৮ মে সর্বোচ্চ শনাক্তের সংখ্যা ছিল এক হাজার ৬০২ জন। এই নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হলেন ২৬ হাজার ৭৩৮ জন। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২১৪ জন এবং এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন পাঁচ হাজার ২০৭ জন।
বুধবার (২০ মে) বেলা আড়াইটায় কোভিড-১৯ সম্পর্কিত সার্বিক পরিস্থিতি জানাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনের আয়োজন করা হয়। সেখানে এই তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।
নতুন মৃত্যুবরণকারীদের বিষয়ে জানানো হয়, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ১৩ জন পুরুষ এবং তিনজন নারী। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে সাতজন, চট্টগ্রাম বিভাগে পাঁচ, সিলেট বিভাগে এক, রংপুর বিভাগে তিনজন রয়েছেন। বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায় যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে দুই, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে চার, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে এক, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে পাঁচ, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এক, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে এক এবং দশ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন। হাসপাতালে মারা গেছেন ১২ জন, বাসায় মৃত্যুবরণ করেছেন চারজন।
বুলেটিনে জানানো হয়, মোট ৪৩টি ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল ১১ হাজার ১৩৮টি এবং পরীক্ষা করা হয়েছে দশ হাজার ২০৭টি। এখন পর্যন্ত দুই লাখ তিন হাজার ৮৫২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ১৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ।
অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৩০০ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন তিন হাজার ৮১৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১০০ জন, এখন পর্যন্ত ছাড়া পেয়েছেন এক হাজার ৮৯৩ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম মিলে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে চার হাজার ১১ জনকে। এখন পর্যন্ত দুই লাখ ৫১ হাজার ৫০২ জনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে। কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড়া পেয়েছেন দুই হাজার ২৮৭ জন। এখন পর্যন্ত ছাড়া পেয়েছেন এক লাখ ৯৮ হাজার ৫৬১ জন। বর্তমানে দেশে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫২ হাজার ৯৪১ জন।

আরও পড়ুন