বেনাপোল পৌরসভার বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব

আপডেট: 07:50:17 09/07/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার, বেনাপোল (যশোর) : স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বেনাপোল পৌরসভার ২০২০-২০২১ অর্থবছরের জন্য ৫৪ কোটি ৪০ লাখ ৫৬ হাজার ৩৬ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে পৌর মিলনায়তনে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে মেয়র আশরাফুল আলম লিটন প্রস্তাবিত এই বাজেট ঘোষণা করেন।
বাজেটে রাজস্ব খাত থেকে আয় ধরা হয়েছে ছয় কোটি ৩৬ লাখ টাকা। বাকি ৪৮ কোটি চার লাখ টাকা সরকারি অনুদান আসবে বলে আশা করা হয়েছে।
২০১১ সালে প্রথম মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর এই পৌরসভার জন্য মাত্র তিন কোটি টাকার বাজেট পেশ করেছিলেন মেয়র লিটন। এবারের প্রস্তাবিত বাজেট টাকার অঙ্কে তার ২০ গুণেরও বেশি।
প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণাকালে তিনি চলতি অর্থবছরেই পৌরসভার তালশারিতে অবস্থিত দশ শয্যার মা ও শিশু হাসপাতালটিকে ২০ শয্যাবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ হাসপাতালে রূপান্তরের পরিকল্পনার কথা জানান।
বাজেট পেশ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেনাপোল কাস্টম হাউজের বিদায়ী কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন চৌধুরী, যুগ্মকমিশনার শহিদুল ইসলাম, উপকমিশনার পারভেজ রেজা চৌধুরী, বেনাপোল স্থলবন্দরের সহকারী পরিচালক আতিকুল ইসলাম, প্রবীণ শিক্ষাবিদ আহসান উল্লাহ মাস্টার, বিশিষ্ট নারী উদ্যোক্তা সাহিদা রহমান সেতু।
বাজেট বক্তৃতায় মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেন, করোনা মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সারা পৃথিবীর মতো বাংলাদেশও স্বাস্থ্য খাতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে। এবার বেনাপোল পৌরসভার বাজেটের স্বাস্থ্য খাতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেটে ১৬ কোটি টাকা ব্যয় করার পরিকল্পনা রাখা হয়েছে স্বাস্থ্য খাতে। মা ও শিশু হাসপাতালেই করোনা রোগের উপসর্গ পরীক্ষা করার উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।
বাজেট সভায় কাস্টমস কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন চৌধুরী বলেন, ‘আমি দীর্ঘ দুই বছর সাত মাস এই কর্মস্থলে থেকে আমার রাজস্ব আদায়ে দেশের একজন নাগরিক হিসেবে যে দায়িত্ব পালন করেছি, তার অন্যতম হলো বেনাপোলে রেল আইসিডি টারমিনাল নির্মাণে সিদ্ধান্ত চূড়ান্তকরণ। দশ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ভারত-বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে বেনাপোলে এই রেল আইসিডি নির্মাণের কাজ চলতি অর্থবছরেই শুরু হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন