বিকাশে প্রতারণা, চক্রের চার সদস্য আটক

আপডেট: 07:42:41 22/03/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার : পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন- পিবিআই সদস্যরা ২১ মার্চ রাতে সাদমান আকিব হৃদয় (২০), মোহাম্মদ সোহেল (২০), অপু মোল্লা (১৯) এবং মনিরুল ইসলাম (২৬) নামে চারজনকে আটক করেছে।
পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমকেএইচ জাহাঙ্গীর হোসেন রোববার জানান, প্রতারণার শিকার লোকজনের সঙ্গে কথা বলে প্রতারকচক্রকে শনাক্ত করা হয়। পিবিআইয়ের অফিসাররা দীর্ঘ এক মাস চেষ্টা করে তাদের আটক এবং ১২টি মোবাইল ফোন, বিভিন্ন অপারেটরের ২১টি সিম, টার্গেট করা ব্যক্তিদের মোবাইল ফোন নম্বরের রেজিস্ট্রার, টাকা উত্তোলনের রেজিস্ট্রার এবং নগদ আড়াই হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।
তিনি জানান, আটক ব্যক্তিরা পুলিশের কাছে প্রতারণার মাধ্যমে বিকাশের টাকা আত্মসাতের কৌশলগুলো বর্ণনা করেছেন। বর্ণনা অনুযায়ী, প্রথমে তারা বিকাশ এজেন্টদের দোকান থেকে রেজিস্ট্রারের পাতার ছবি কৌশলে তুলে নেন। তারপর ‘বিকাশের প্রধান কার্যালয়ের কর্মকর্তা’ পরিচয় দিয়ে টার্গেট ব্যক্তিদের বিকাশ অ্যাকাউন্টের ভেরিফিকেশন কোড ও পিন সংগ্রহ করেন এবং বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে নির্ধারিত নম্বরে টাকা পাঠিয়ে দেন। তৃতীয় ধাপে প্রতারকরা বিকাশ এজেন্টের মাধ্যমে ওই টাকা উত্তোলন করেন। ধরা পড়া প্রতারকরা মাগুরা, নড়াইল, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, রাজশাহী ও যশোর জেলায় কাজ করতেন।
অধিকাংশ প্রতারণার কাজে আটক ব্যক্তিরা ০১৩১৬-৩৩৩৬৪৪, ০১৭৯৬-৩৫১৬৮০, ০১৯০৫-৫৩০৫২৫, ০১৮৯৩-৭০৫৯২৫, ০১৭১৪-৬৪৩৬৫৬, ০১৮৪০-৭৪৪৬৪৬ নম্বর ব্যবহার করতেন।
তিনি জানান, আটক ব্যক্তিদের যশোর কোতয়ালী থানায় পাঠানো হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন