বাঘারপাড়ায় পাল্টাপাল্টি নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর

আপডেট: 12:21:42 05/12/2020



img
img

বাঘারপাড়া (যশোর) প্রতিনিধি : বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ফের পাল্টাপাল্টি নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।
শুক্রবার সন্ধ্যা ও রাত আটটার দিকে যথাক্রমে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (আনারস) এবং  আওয়ামী লীগের প্রার্থীর (নৌকা) নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এতে নির্বাচনী এলাকাটিতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে দাবি করেছে থানা পুলিশ।
আগামী ১০ ডিসেম্বর বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে। উপজেলা চেয়ারম্যান কাজল সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হলে পদটি শূন্য হয়।
এই নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যে নানা ঘটনা ঘটছে বাঘারপাড়ায়। প্রতিদ্ব›দ্বী তিন প্রার্থী গেল দুই দিনে যশোরে সংবাদ সম্মেলনে এসে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেছেন।
স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে উপজেলার বহরমপুরে আনারস প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এর পাল্টা হিসেবে রাত আটটার দিকে ওই এলাকার ছোট মহরমপুরে নৌকা প্রতীকের কার্যালয় ভাঙচুর হয়। এ ঘটনায় এক পক্ষ অন্য পক্ষকে দায়ী করেছে।
আজকের ঘটনার ব্যাপারে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ভিক্টোরিয়া পারভিন সাথীর দেবর ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম টুটুল বলেন, ‘ছোট বহরমপুর আমাদের নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করেছে আনারস প্রতীকের সমর্থকরা। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি অরুণ অধিকারীর ছেলের নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়। ওই সময় তাপস নামে নৌকা প্রতীকের এক কর্মীর বাড়ির বিচালিতে আগুন দিয়ে ভীতি সৃষ্টি করা হয়।’
ঘটনার ব্যপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান টুটুল।
অন্যদিকে, আনারস প্রতীকের প্রার্থী দিলু পাটোয়ারী অভিযোগ করেন, নৌকা প্রতীকের কর্মী শামছুর ছেলে রোমানের নেতৃত্বে তার নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর করা হয়। আনারস প্রতীকের বিজয় নিশ্চিত জেনে নৌকার লোকজন উদ্দেশ্যমূলকভাবে একের পর এক হামলা-ভাঙচুরের ঘটনা ঘটিয়ে আসছে।
শুক্রবারের ঘটনায় আইনি পদক্ষেপ নেবেন বলে জানান দিলু পাটোয়ারী।
জানতে চাইলে বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আল মামুন ঘটনাস্থল থেকে জানান, নৌকা প্রতীকের পক্ষে মামলা করতে তাদের (নৌকা প্রতীকের) প্রতিনিধি থানায় অবস্থান করছেন। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আনারস প্রতীকের কেউ থানায় মামলা দিতে আসেনি।
পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে আছে বলেও উল্লেখ করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন