বাঘারপাড়ায় জমজমাট হাট, কে শোনে কার কথা?

আপডেট: 10:11:39 06/04/2020



img
img

চন্দন দাস, বাঘারপাড়া (যশোর) : করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে লোকজনকে অপ্রয়োজনে ঘরের বাইরে না বেরুতে প্রশাসনের কঠোর নির্দেশনা থাকলেও যশোরের বাঘারপাড়ায় তা মানা হচ্ছে না। এখানকার সব সাপ্তাহিক হাট বন্ধের কঠোর নির্দেশনা জারি হয়েছে আগেই।
কিন্তু অবস্থা এমন- ‘কে শোনে কার কথা?’। সোমবার সকাল থেকেই বাঘারপাড়া সদরের সাপ্তাহিক হাট ছিল অনেকটা জমজমাট। হাটে আসা ক্রেতা-বিক্রেতাদের শারীরিক দূরত্ব রক্ষার কোনো তাগিদ দেখা যায়নি।
সবজি ব্যবসায়ী আলী রায়হান বলেন, ‘ভাই পেটের দায়ে হাটে আইছি। বাড়ি বসে থাকলি খাবার জোটবে না।’
তার পাশে থাকা আরেক সবজি বিক্রেতা এখলাস উদ্দিন বলেন, ‘কৃষকরা তাদের সবজি নিয়ে হাটে আসে। সবজি হাটে না তুললি কৃষকগের সবজি ক্ষেতের মধ্যি পচে যাবে।’
হাটে আসা লিয়াকত আলী নামে এক এনজিও কর্মী বলেন, ‘হাটটির জায়গা কম হওয়ায় গাদাগাদি করে কেনা-বেচা করতে হয়। প্রশাসনের উচিত ফাঁকা কোনো মাঠের মধ্যে হাটটি স্থানান্তর করা।’
বাঘারপাড়া পৌরসভার মেয়র কামরুজ্জামান বাচ্চু বলেন, ‘এ ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। ফের আলোচনা করে কঠোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার দাবি তুলবো।’
জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) তানিয়া আফরোজ বলেন, ‘প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাঘারপাড়ার সব সাপ্তাহিক হাট বন্ধের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। হাট মালিকদের (ইজারাদার) সাথেও কথা বলেছি। আমাদের কাছে খবর আসলেই আমরা ব্যবস্থা নিই। ইতিপূর্বেও নিয়েছি। এ ব্যাপারে আরো কঠোর ভূমিকা পালন করবো।’

আরও পড়ুন