পাইকগাছায় নদী ইজারার প্রক্রিয়া, কৃষকদের ক্ষোভ

আপডেট: 06:32:22 22/09/2020



img

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছায় ডিহিবুড়া নদী ইজারা নিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। ইজারা প্রদানের প্রক্রিয়া বন্ধের দাবিতে সভা-সমাবেশ ও মানববন্ধন হয়েছে।
এ প্রক্রিয়া বন্ধ না হলে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন চেয়ারম্যানসহ সকল জনপ্রতিনিধি এলাকাবাসী।
উপজেলার দেলুটি ইউনিয়নে ডিহিবুড়া নদীর অবস্থান। কৃষি সেচের জন্য এ নদীতে সারা বছর মিষ্টি পানি সংরক্ষরণ করা হয়। লবণপানিবেষ্টিত এলাকা হলেও ২০১৪ সাল থেকে এলাকাবাসী ২২ নম্বর পোল্ডারে লবণপানি উঠা-নামা বন্ধ করে দেন। তখন থেকে হরিণখোলা, দারুণমল্লিক, কালিনগর, বিগরদানা, সেনের বেড় ও হাটবাড়ি গ্রামের কৃষকরা এ নদীর পানি দিয়ে কৃষিকাজ করে আসছেন। ডিহিবুড়া নদীর সংরক্ষণ করা পানি দিয়ে সাড়ে চার হাজার বিঘা জমিতে ধান, তরমুজ, বাঙ্গি ও তিলসহ নানা প্রকার রবিশস্য উৎপাদন করা হয়। এ এলাকার উৎপদিত তরমুজ দেশ-বিদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে রপ্তানি করে লাখ, লাখ টাকা আয় করে আসছেন কৃষকরা। অসংখ্য লোকের হয়েছে কর্মসংস্থান।
কিন্তু চলতি বছর এলাকার একমাত্র মিষ্টি পানির আধার ডিহিবুড়া নদী ইজারা নেওয়ার জন্য বহিরাগত কিছু লোক তৎপরতা শুরু করেন। সরকারের পক্ষ থেকে ইজারা প্রদানের ব্যাপারে অনেক অগ্রগতিও হয়েছে।
চাষিদের জন্য উদ্বেগজনক এই তথ্য জানার পর দেলুটি ইউপি চেয়ারম্যান রিপনকুমার মণ্ডল উপজেলার মাসিক সভায় তা উত্থাপন করেন। তিনিসহ কৃষকরা এই প্রক্রিয়াকে ‘চক্রান্ত’ হিসেবে দেখছেন। এ চক্রান্ত বন্ধের দাবিতে এ নদীর তীরে রোববার ইউনিয়ন  পরিষদ ও এলাকাসীর উদ্যোগে মানববন্ধনও হয়েছে।
কৃষকরা বলছেন, নদীটি ইজারা দিলে তাদের কৃষিক্ষেতে মিঠা পানির তীব্র সংকট সৃষ্টি হবে। সেক্ষেত্রে বন্ধ হয়ে যাবে চাষাবাদ। সেই কারণে তারা যেকোনো মূল্যে নদী ইজারা ঠেকাতে উদগ্রীব।

আরও পড়ুন