নড়াইল-কালিয়ায় আ.লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী বহিষ্কার

আপডেট: 08:53:50 10/01/2021



img

নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইল ও কালিয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করায় তাদের দল থেকে বহিষ্কারের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। অবশ্য কালিয়া পৌরসভার নির্বাচন থেকে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা বিএম ইমদাদুল হক টুলু।
রোববার (১০ জানুয়ারি) ছিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন।
নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল পৌরসভায় মেয়র পদে নির্বাচন করছেন চারজন। এরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত আনজুমান আরা, বিএনপি মনোনীত জুলফিকার আলী, আওয়ামী লীগের বিদ্রাহী প্রার্থী হিসেবে পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার আলমগীর হোসেন এবং ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের মাওলানা খায়রুজ্জামান।
কালিয়া পৌরসভায় মেয়র পদে তিনজন লড়ছেন। এরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত ওয়াহিদুজ্জামান হীরা, বিএনপি মনোনীত ওয়াহিদুজ্জামান মিলু এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে বর্তমান মেয়র কালিয়া স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক আহ্বায়ক ফকির মুশফিকুর রহমান লিটন।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকট সুবাসচন্দ্র বোস বলেন, 'ইতিপূর্বে দলীয়ভাবে মিটিং করে আমার এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত চিঠিতে বিদ্রোহীদের জানিয়ে দেওয়া হয় মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা না হলে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। দুইজন মেয়র প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করে গঠনতন্ত্রপরিপন্থী কাজ করায় তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।'
এদিকে নড়াইল পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১১ ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৯ জন এবং কালিয়া পৌরসভায় সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে নয়জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩২ জন নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। প্রত্যাহারের শেষ দিন দুটি পৌরসভায় সংরক্ষিত মহিলা আসনে একজন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে নয়জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।
সোমবার (১১ জানুয়ারি) প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ এবং আগামী ৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন