তিন বছর পর ফিরলো তিন কিশোর-কিশোরী

আপডেট: 09:16:46 22/10/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার, বেনাপোল (যশোর) : ভালো কাজের প্রলোভনে পড়ে অবৈধ পথে ভারতে পাচার হওয়া এক কিশোর ও দুই কিশোরীকে দুইবছর পর বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বিএসএফ।
বৃহস্পতিবার বিকেলে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের কাছে তাদেরকে হস্তান্তর করেন ভারতের পেট্রাপোল বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা। পরে বিজিবি তাদেরকে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে পোর্ট থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। সেখান থেকে ‘বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ’ নামে একটি এনজিও তাদের গ্রহণ করেছে।
ফেরত আসারা হলো, যশোরের বাসিন্দা এসএন বিশ্বাসের ছেলে আল-আমিন বিশ্বাস (১৭), নড়াইলের মালিয়াট গ্রামের যুথি রায় (১৬) এবং মুন্সিগঞ্জ জেলার দেওপাড়া বড়বাড়ি গ্রামের শিউলি আক্তার (১৯)।
বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্পের সুবেদার আরশাফ আলী জানান, ফেরত আসারা সংসারে অভাব-অনটনের কারণে দালালের খপ্পরে পড়ে ভালো কাজের আশায় ২০১৮ সালের ২১ নভেম্বর সীমান্তের অবৈধ পথে ভারতে পাড়ি জমায়। পরে ভারতের পুলিশ সদস্যরা অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে তাদের আটক করে। সেখানকার একটি এনজিও তাদের জেল থেকে ছাড়িয়ে কলকাতার হাবড়ার ‘এসএমএম’ নামে একটি শেল্টার হোমে রাখে। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্বদেশ প্রত্যাবাসন আইনে তাদের দেশে ফেরার ব্যবস্থা করা হয়। বৃহস্পতিবার বিএসএফ সদস্যরা তাদের বিজিবির কাছে হস্তান্তর করে।
বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের আইনজীবী ও যশোর শাখার প্রোগ্রাম অফিসার রেখা বিশ্বাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, পাচারের শিকার কিশোর-কিশোরীদের পরিবার যদি তাদের শনাক্ত করে মামলা করতে চায়, তাহলে আইনি সহয়তা করা হবে।
বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ফেরত আসা তিন কিশোর-কিশোরীকে তাদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন