ছাত্রলীগ নেতা হত্যার ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার নেই

আপডেট: 04:23:41 14/09/2020



img

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ জহিরুল ইসলাম রেজোয়ানকে (২৮) কুপিয়ে হত্যার ঘটনার তিনদিন পর লোহাগড়া থানায় মামলা হয়েছে।
নিহত রেজোয়ানের মা জরিনা বেগম সোমবার দুপুরে সোহেল খানসহ ১৪ জনকে আসামি করে হত্যা মামলাটি করেন। তবে পুলিশ এজাহারভুক্ত কোনো আসামিকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি।
মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, পূর্ববিরোধ ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করাকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি সোহেল খান এলাকায় চুরি, ডাকাতি, খুন, ধর্ষণসহ অন্যান্য অপরাধে জড়িত। নিহত রেজোয়ান ওই সব অপরাধের বিরোধিতা করায় সোহেলসহ তার সহযোগীরা রেজোয়ানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে।
লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান মামলা হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ঘটনার পরপরই হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ওই এলাকার দশজনকে আটক করে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে গত শনিবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রধান আসামিসহ অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।
তিনি আরো জানান, প্রধান আসামি সোহেল পুলিশের বিশেষ শাখার তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। তার নামে লোহাগড়া থানায় হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।
গত শুক্রবার রাতে উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ জহিরুল ইসলাম রেজোয়ানকে (২৮) কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে একদল দুর্বৃত্ত। নিহত রেজোয়ান কুমড়ি গ্রামের মৃত সাইফুল ইসলামের ছেলে।

আরও পড়ুন