চৌগাছায় বিদেশফেরত ৮৪০ জনের সন্ধানে পুলিশ

আপডেট: 07:27:12 22/03/2020



img

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : চৌগাছায় কোয়ারেন্টিনের বাইরে থাকা ৮৪০ প্রবাসী ব্যক্তিকে খুঁজছে পুলিশ। অন্যদিকে নতুন করে ১৪ প্রবাসফেরত ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টিনে’ আওতায় আনা হয়েছে।
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বিদেশ ফেরত সব নাগরিককে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সরকারি নির্দেশনা না মেনে তথ্য গোপন করে পরিবারের সঙ্গে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করছেন সম্প্রতি বিদেশফেরত এসব প্রবাসী।
ইমিগ্রেশনের মাধ্যমে প্রাপ্ত ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাঠানো তথ্য মতে, গত একমাসে (২০ মার্চ পর্যন্ত) যশোরের চৌগাছা উপজেলায় বিদেশফেরত ব্যক্তির সংখ্যা ৮৬০ জন। তবে উপজেলায় বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন মাত্র ১৭ জন। যার ১৪ জনকে নতুন করে কোয়ারেন্টিনের আওতায় নেওয়া হয়েছে। ফলে বিদেশফেরত মোট ২০ জনকে কোয়ারেন্টিনের আওতায় নেওয়া হলো।
এদিকে আগে থেকে কোয়ারেন্টিনে রাখা তিন প্রবাসফেরত ব্যক্তি ও ইতালিফেরত এক দম্পতি পরিবারের ছয়জনকে মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ উপজেলায় ৮৪০ প্রবাসফেরত ব্যক্তির হদিস নেই প্রশাসনের কাছে। এছাড়া ২১ এবং ২২ তারিখেও কয়েক ব্যক্তি চৌগাছায় এসেছেন। তাদেরও সন্ধানও জানে না পুলিশ।
অন্যদিকে, বেনাপোল স্থলবন্দর হয়ে ভারত থেকে এসেছেন এমন ব্যক্তিরাও রয়েছে কোয়ারেন্টিনের বাইরে। শনিবারও ভারতের পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া তিনজন চৌগাছায় ফেরার তথ্য পাওয়া গেছে।
এ বিষয়ে চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. লুৎফুন্নাহার বলেন, ‘নতুন করে ১৪ ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা হয়েছে। এছাড়া আগের ১২ জনের মধ্যে নয়জনকে কোয়ারেন্টিন-মুক্ত করা হয়েছে। ফলে বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ১৭ জন।
চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহিদুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রেরিত তালিকার ১৪ জনকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় খুঁজে নতুন করে কোয়ারেন্টিনের আওতায় নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে পুরনোদের মধ্যে নয়জনকে মুক্ত করা হয়েছে।
তিনি বলেন, অন্য যারা ১০ মার্চের পর বিদেশ থেকে ফিরেছেন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গঠিত কমিটির মাধ্যমে আইনশৃংখলা বাহিনীর সহায়তায় চিরুণি অভিযান চালিয়ে তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে যেতে বাধ্য করা হবে।
চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিফাত খান রাজীব বলেন, তথ্য অনুযায়ী ‘লুকিয়ে থাকা’ প্রবাসীদের সন্ধান করা হচ্ছে। তাদেরকে খুঁজে হোম কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা হবে।

আরও পড়ুন