চুক্তি হলেও দুটি আধুনিক বাজার নির্মাণ শুরু হয়নি

আপডেট: 06:46:37 18/10/2020



img

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) সঙ্গে চুক্তি হওয়ার পরও তিন কোটি ৪৫ লাখ ৭৯ হাজার টাকার দুটি আধুনিক বাজার নির্মাণ কাজ শুরু করেনি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। জটিলতার কারণে কাজ করে শুরু হবে- তাও অনিশ্চিত।
চুয়াডাঙ্গা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলীর দপ্তর সূত্রে জানা যায়, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে হাটবাজার উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সদর উপজেলার মোমিনপুর ইউনিয়নের কাথুলী ও আলমডাঙ্গা উপজেলার হারদী ইউনিয়নের ওসমানপুর গ্রামে আধুনিক বাজার নির্মাণের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়। সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে ‘মেসার্স শামসুদ্দোহা মল্লিক’ নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দুটি কাজ পায়। সে অনুযায়ী ২০২০ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি ওসমানপুর ও ১২ মে কাথুলী বাজার নির্মাণের জন্য এই প্রতিষ্ঠানটি এলজিইডির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়। চুক্তি অনুযায়ী এ কাজ দুটি এক বছরে শেষ হওয়ার কথা। কিন্তু ওসমানপুর আট মাস ও কাথুলী বাজার নির্মাণ কাজ শুরুর জন্য পাঁচ মাস পেরিয়ে গেছে। কিন্তু কাজ শুরু হয়নি। ভূমি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমঝোতা স্বাক্ষর শেষ না করে, দরপত্র আহ্বান করায় কাজের শুরুতেই জটিলতা সৃষ্টি হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন প্রকৌশলী বলেন, গেল নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম দরপত্র আহ্বানের আগে যে সব প্রক্রিয়া শেষ করার কথা, সেগুলো না করায় কাজের শুরুতেই জটিলতা হচ্ছে। প্রক্রিয়া শেষ করে কাজ শুরু হলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের তাড়াহুড়োর কারণে নিম্নমানের কাজ হতে পারে বলে এই প্রকৌশলী মনে করেন।
চুয়াডাঙ্গা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী অমিতাভ সানা বলেন, হাটবাজার উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে নির্মিতব্য আধুনিক এ চারতলা বাজার দুটিতে আধুনিক ব্যবস্থা থাকবে। এ বাজারে দশটি দোকান হবে। তার মধ্যে দুটি নারীদের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হবে। নিয়ম অনুযায়ী দরপত্র আহ্বানের আগেই হাটবাজার নির্মাণ করতে গেলে ভূমি মন্ত্রণালয়ে সঙ্গে সমঝোতা স্বাক্ষর করতে হয়; যা করা হয়নি। তবে এ প্রক্রিয়া করেই বাজার দুটির নির্মাণ কাজ খুব শিগগির শুরু হবে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুন