চীনের সামরিক শক্তি ভারতের চেয়ে অনেক বেশি

আপডেট: 01:58:21 24/06/2020



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : লাদাখে ভারত ও চীনের মধ্যে উত্তেজনা তীব্র। সম্প্রতি সেখানে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষে ভারতের অন্তত ২০ সেনা সদস্য নিহত হওয়ার পর উত্তেজনা আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। চীনের বিরুদ্ধে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এমন অবস্থায় পারমাণবিক শক্তিধর এই দুটি দেশের দিকে কড়া দৃষ্টি রাখছেন যুদ্ধবিশারদরা।
যদি এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়ে যায়, তাহলে কে জিতবে- ভারত নাকি চীন? এ নিয়ে নানা হিসাব। নানা বিশ্লেষণ। কারণ, সামরিক ব্যয়ের দিক দিয়ে ভারতের চেয়ে অনেক এগিয়ে চীন। স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউটের তথ্যমতে, তারা সামরিক ব্যয়ের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে।
চীনের বার্ষিক সামরিক ব্যয় ২৬ হাজার ১০০ কোটি ডলার। অন্যদিকে এদিক দিয়ে ভারতের অবস্থান তৃতীয়। অর্থাৎ চীনের চেয়ে একধাপ নিচে ভারত। ভারতের বার্ষিক সামরিক ব্যয় সাত হাজার ১১০ কোটি ডলার।
বিজনেস ইনসাইডারের হিসাব মতে, যুদ্ধবিমানের শক্তির দিক দিয়ে চীন পৃথিবীতে তৃতীয় অবস্থানে। তাদের কাছে আছে তিন হাজার ২১০টি যুদ্ধবিমান। এক্ষেত্রেও চীনের চেয়ে এক ধাপ নিচে ভারতের অবস্থান- চতুর্থ। ভারতের কাছে আছে দুই হাজার ১২৩টি যুদ্ধবিমান।
এরই মধ্যে ভারতের ডিআরডিও তাদের ব্যাপক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পৃত্থি-১ এর পরীক্ষা চালিয়েছে। এর পাল্লা ১৫০ কিলোমিটার। অন্যদিকে পৃত্থি-২ এর পাল্লা ২৫০ কিলোমিটার।
২০২০ সালে এসে বিশ্ব সবচেয়ে বৃহৎ সক্রিয় সামরিক বাহিনী রয়েছে চীনের। সেখানে সক্রিয় সেনা সদস্যের সংখ্যা ২১ লাখ ৮০ হাজার। স্ট্যাসিস্টা’র মতে, এর কাছাকাছি রয়েছে ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, উত্তর কোরিয়া ও রাশিয়া। এখানে আরো উল্লেখ করা যেতে পারে যে, ভারতের চেয়ে চীনের হাতে আছে দ্বিগুণ ফাইটার এবং ইন্টারসেপ্টর। চীনের আছে ব্যবহার উপযোগী ৫০৭টি বিমানবন্দর। অন্যদিকে ভারতের আছে ৩৪৬টি।
গ্লোবাল ফায়ারপাওয়ারের মতে, চীনের হাতে আছে কমপক্ষে তিন হাজার ২০০টি ট্যাংক। ভারতের আছে চার হাজার ২০০টি। কিন্তু চীনের হাতে সাঁজোয়া যান আছে বিস্ময়করভাবে ৩৩ হাজার। কিন্তু এক্ষেত্রে ভারত অনেক দুর্বল। তাদের আছে কমপক্ষে আট হাজার ৬০০টি। সাম্প্রতিক তথ্যমতে, ভারতের তুলনায় চীনের কাছে ১০ গুণ বেশি রকেট উৎক্ষেপক আছে। চীনের হাতে এমন উৎক্ষেপকের সংখ্যা কমপক্ষে দুই হাজার ৬৫০টি। অন্যদিকে ভারতের আছে মাত্র ২৬৬টি। ভারতের তুলনায় চীনের হাতে প্রায় তিনগুণ নৌসম্পদ আছে। চীনের এমন সম্পদের সংখ্যা ৭৭৭। পক্ষান্তরে ভারতের আছে ২৮৫টি। চীনের আছে ৭৪টি সাবমেরিন। ভারতের আছে ১৬টি। চীনের কাছে আছে ৩৬টি ডেস্ট্রয়ার। ভারতের আছে মাত্র ১১টি।
[মানবজমিনের বিশ্লেষণ]

আরও পড়ুন