কালীগঞ্জে ফের সবজিক্ষেত ধ্বংস করলো দুর্বৃত্তরা

আপডেট: 07:01:08 13/10/2020



img

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : কালীগঞ্জে বাপ্পি নামে এক গরিব কৃষকের ১৪ কাঠা জমির পুঁইশাক কেটে সাবাড় করে দিয়েছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা।
সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার মালিয়াট ইউনিয়নের গয়েশপুর গ্রামের মাঠে এই ঘটনা ঘটে। এই ১৪ কাঠা জমিতে সবজি উৎপাদন করতে তার খরচ হয়েছে প্রায় ৫০ হাজার টাকা। এ বছর প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার পুঁইশাক বিক্রি করার আশা করেছিলেন তিনি।
বাপ্পি উপজেলার গয়েশপুর গ্রামের আনছার আলী মোল্যার ছেলে। এর আগে ৬ সেপ্টেম্বর রাতে তার ঋণের টাকায় চাষ করা দশ শতক জমির বেগুন ক্ষেত কেটে দিয়েছিল দুর্বৃত্তরা। তাতে তার ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছিল।
ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক বাপ্পি জানান, ‘মঙ্গলবার সকালে পুঁইশাক তুলে বাজারে নেওয়ার জন্য জমিতে যাই। গিয়ে দেখি আমার ১৪ কাঠা জমির সমস্ত পুঁইশাক কেটে কেউ সাবাড় করেছে। এখন আমি পরিবার নিয়ে কী করে বেঁচে থাকব?’
সংবাদ পেয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বার ও পুলিশ ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের ক্ষেত পরিদর্শন করেন।
সম্প্রতি কালীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় রাতের আঁধারে একের পর এক কৃষকের ক্ষেতের ফসল কেটে দিচ্ছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা। পুকুরে কীটনাশক দিয়ে মাছ নিধনও করা হচ্ছে। চার মাসে কালীগঞ্জে প্রায় ২০ কৃষকের ফসল ও মাছ নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা পথে বসছেন। কিন্তু প্রতিকার মিলছে না।
গত ২০ জুন কালীগঞ্জ পৌর এলাকার বাবরা এলাকার আলী বকসের দুই ছেলে কৃষক টিপু সুলতান ও শহিদুল ইসলামের ১৫ কাঠা জমির কাঁদিওয়ালা কলাগাছ কেটে দেয় দুর্বৃত্তরা। ৩ জুলাই মল্লিকপুর গ্রামের মল্লিক মণ্ডলের ছেলে সবজিচাষি মাজেদুল মন্ডলের আড়াই বিঘা জমির তিন শতাধিক পেঁপে গাছ কেটে দেয় অজ্ঞাত ব্যক্তিরা। একইভাবে ৭ জুলাই কালীগঞ্জ পৌর এলাকার ফয়লার তাকের হোসেনের ছেলে আবু সাঈদের ১৫ শতক জমির করলা গাছ কেটে সাবাড় করা হয়। ১৩ জুলাই বারোবাজারের ঘোপ গ্রামের মাহতাব মুন্সির ছেলে আব্দুর রশিদের দেড় বিঘা জমির শিমগাছে কীটনাশক স্প্রে করে পুড়িয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। ৯ আগস্ট তিল্লা গ্রামের সতীশ বিশ্বাসের ছেলে বিকাশ বিশ্বাসের ১৫ শতকের করলা ক্ষেত, ২৮ আগস্ট সাইটবাড়িয়া গ্রামের ইউপি সদস্য কবিরুল ইসলাম নান্নুর পুকুরে গ্যাস বড়ি দিয়ে প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন করে। ১০ অক্টোবর দিবাগত রাতে শিমলা রোকনপুর ইউনিয়নের বড় শিমলা গ্রামের নূর ইসলামের এক বিঘা জমির ৪০০ লাউগাছ কেটে দেয় দুর্বৃত্তরা।
কালীগঞ্জ থানার ওসি মাহাফুজুর রহমান মিয়া জানান, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষককে থানায় মামলা করার পরামর্শ দিয়েছেন। মামলার পর তদন্ত করে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন