এমপিও'র দাবিতে যশোরে শিক্ষকদের স্মারকলিপি

আপডেট: 07:06:36 09/02/2021



img

স্টাফ রিপোর্টার : বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্স শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তির দাবিতে প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছেন যশোরের শিক্ষকরা।
মঙ্গলবার (০৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ বেসরকারি কলেজ অনার্স-মাস্টার্স শিক্ষক ফেডারেশন যশোর শাখার উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে এ স্মারকলিপি দেওয়া হয়। এর আগে কালেক্টরেট চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।
স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রায় ২৮ বছর ধরে বেসরকারি কলেজের অনার্স ও মাস্টার্সের শিক্ষকরা শুধুমাত্র জনবল কাঠামোতে না থাকার কারণে এমপিওভুক্তির বাইরে রয়েছে। গত বছরের শেষ দিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জনবল কাঠামো সংশোধনের উদ্যোগ গ্রহণ করে। উক্ত সংশোধনীর প্রথম সভায় অনার্স-মাস্টার্স কোর্সের শিক্ষকদের জনবল কাঠামোতে অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পরবর্তীতে সরকারের পলিসির বিষয় উল্লেখ করে অনার্স-মাস্টার্স শিক্ষকদের নীতিমালার বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নেন সংশোধনী কমিটি। ‘শুধুমাত্র জনবল কাঠামোর অজুহাতে দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে আমাদেরকে কেন সরকারি সুযোগ-সুবিধার (এমপিও) বাইরে রাখা হয়েছে তা বোধগম্য নয়। তাই  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয় স্মারকলিপিতে।
এদিকে মানববন্ধনে সংগঠনের নেতারা বলেন, উচ্চ শিক্ষায় নিয়োজিত যশোরে ৩৫০ জনসহ সারাদেশে ৩১৫টি কলেজের পাঁচ হাজার ৫০০ জন শিক্ষকের বেতন ভাতার যৌক্তিক দাবিতে শিক্ষকরা আজকের কর্মসূচি পালন করছে। বছরে ১৪৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করলেই এসব শিক্ষকরা সমাজে সম্মান নিয়ে বাঁচতে পারে।
মানববন্ধনে সংগঠনের যশোর জেলা শাখার আহ্বায়ক প্রভাষক মো. তরিকুল ইসলাম, সদস্য সচিব প্রভাষক মো. জসিম উদ্দীনসহ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সংহতি প্রকাশ করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট যশোর জেলা শাখার সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট যশোর জেলা শাখার সাবেক সভাপতি ও ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা সভাপতি হারুন-অর-রশীদ, প্রভাষক আব্দুল কুদ্দুস, প্রভাষক শরিফুল ইসলাম, প্রভাষক জাহাঙ্গীর হোসেন, রুমা পারভীন প্রমুখ।

আরও পড়ুন