উপকূল রক্ষাবাঁধে পাইপ, মামলায় মাত্র চারজন

আপডেট: 09:46:29 18/11/2019



img

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : সুন্দরবন-সংলগ্ন শ্যামনগরকে ঘিরে থাকা উপকূল রক্ষাবাঁধে দুই হাজারেরও বেশি ওভার পাইপ থাকা সত্ত্বেও পাউবো কর্তৃপক্ষ মাত্র চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে।
‘বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের অবস্থা নাজুক’ হওয়ার অভিযোগ এনে বাপাউবো-এর ভেটখালী পওর শাখার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাসুদ রানা ১৭ নভেম্বর শ্যামনগর থানায় ২৩ ক্রমিকের মামলাটি রুজু করেন।
১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫ (৩) ধারায় দায়ের করা মামলায় শ্যামনগর উপজেলার পশ্চিম কৈখালী গ্রামের বাবলু গাজী, রাজ্জাক গাজী, ফজলুল হক ও মহিবুল্লাহ গাজীকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরো ৫-৭ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘পাউবোর বেড়িবাঁধে অবৈধভাবে পাইপ স্থাপন করে বাঁধের ক্ষতিসাধন করা হয়েছে।’
এদিকে, উপকূল রক্ষা বা বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে দুই হাজারেরও বেশি পাইপ থাকা সত্ত্বেও মাত্র চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ায় অনেকে বিস্মিত। স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী একটি মহলকে বিশেষ সুবিধা পাইয়ে দিতে এমনটি করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। যদিও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অভিযোগ অস্বীকার করে বলছেন, পর্যায়ক্রমে সব পাইপ উঠিয়ে ফেলা হবে।

আরও পড়ুন