আবরারকে নিয়ে নোংরা রাজনীতি নয় : হানিফ

আপডেট: 04:09:04 17/10/2019



img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, আসলে আবরার হত্যাকাণ্ড নিয়ে বিএনপি-জামায়াত, সেই সঙ্গে কিছু জনবিচ্ছিন্ন রাজনীতিবিদ একটা ইস্যু নিয়ে নোংরা রাজনীতি করতে চায়। তারা ভাবছে, এইসব নিয়ে হয়তো সরকারকে বিপদে ফেলতে পারবে। আমরা আগেই বলেছি এটা নিয়ে রাজনীতি করে কোনো লাভ হবে না।
বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে ২২ অক্টোবর ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঐক্যফ্রন্ট সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছে। এই প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে হানিফ এমন মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, ‘আবরারের বাবা-মা বলেছেন, তাদের ছেলে হত্যার ন্যায়বিচার চান। আবরারের পিতা এটাও বলেছেন, তার ছেলের হত্যাকাণ্ড নিয়ে কোনো নোংরা রাজনীতি তিনি দেখতে চান না। আবরারের পিতা যখন এই ধরনের নোংরা রাজনীতি দেখতে চান না, তারপরেও যারা এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে তথাকথিত প্রতিবাদের নাম করে রাজনীতি করতে চান, তখন বলতেই হবে এটা একটা নোংরা রাজনীতি ছাড়া আর কিছুই নয়।’
হানিফ আরো বলেন, ‘গণফোরামের নেতা যিনি আজকে মানবতার কথা বলছেন, তার কন্যা ও তার জামাতা যুদ্ধাপরাধী, মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচার বন্ধ করার জন্য তৎপরতা চালিয়েছে। সেটা দেশবাসী ভোলে নাই। যার সন্তান ও তার স্বামী অশুভ শক্তির পাশে দাঁড়ায় তাদের প্রতি জনগণের বা দেশের মানুষের কোনো আস্থা থাকার কথা নয়।’
‘ঐক্যফ্রন্ট কী করবে সেটা তাদের ব্যাপার। যাদের পিছনে জনগনের সমর্থনই নাই, একটা গণধিকৃত দল, এরা বিভিন্ন সময় অন্যের অবলম্বন হয়ে চলে। এই সমস্ত পরগাছা গণধিক্কৃত রাজনৈতিক দলের কী কর্মসূচি আছে না আছে তাদের নিয়ে মাথা ঘামানোর কোনো ইচ্ছে আওয়ামী লীগের নাই,’ বলছিলেন হানিফ।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা স্টেডিয়ামের সামনে কৃষকলীগের সম্মেলনে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জর্জ, কুষ্টিয়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম সরওয়ার জাহান বাদশা, কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. মোতাহার হোসেন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক শামসুল হক রেজাসহ জেলা আওয়ামী লীগ, কৃষকলীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন