কম মেয়ে পাস করলেও ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে

আপডেট: 01:49:18 19/07/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় দশ বিভাগের মধ্যে এবারো সম্মিলিতভাবে ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রীরা বেশি ভালো করেছে। তবে তাদের ফলাফল গতবারের চেয়ে খারাপ হয়েছে। গতবারের চেয়ে কম সংখ্যক ছাত্রী এবার পাস করেছে।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ শিক্ষা বোর্ডের প্রধানদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলের অনুলিপি হস্তান্তর করেন।
এ সময় জানানো হয়েছে, ১০ শিক্ষা বোর্ডে পাসের গড় হার  ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ। এ বছর মোট পাস করেছে আট লাখ ৫৮ হাজার ১০১ জন। এর মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ২৯ হাজার ২৬২ জন।
সারা দেশের দুই হাজার ৫৪১টি কেন্দ্রে এবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১২ লাখ ৮৮ হাজার ৭৫৭ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ছাত্রী ছয় লাখ ৮০ হাজার ৮৮৪ জন আর ছাত্র ছয় লাখ সাত হাজার ৮৭৩ জন। এর মধ্যে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড আর একটি কারিগরি ও একটি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড।
ছয় লাখ ৮০ হাজার ৮৮৪ জন ছাত্রীর মধ্যে পাস করেছে চার লাখ ২৩ হাজার ৮৮৩ জন। তাদের পাসের হার ৬৯ দশমিক ৭২ ভাগ।
আর ছয় লাখ সাত হাজার ৮৭৩ জন ছাত্রের মধ্যে পাস করেছে চার লাখ ৩৪ হাজার ৯৫৮ জন। তাদের পাসের হার ৬৩ দশমিক ৮৮ শতাংশ।
অর্থাৎ এবার ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রীদের পাসের হার ৫ দশমিক ৮৪ শতাংশ বেশি।
তবে এবার মেয়েদের পাসের হার গতবারের চেয়ে কম। গতবার ছাত্রীদের পাসের হার ছিল ৭০ দশমিক ৪৩ শতাংশ, আর ছাত্রদের পাসের হার ৬৭ দশমিক ৬১ শতাংশ। সেই হিসেবে এবার আলাদাভাবে ছাত্রদের পাসের হারও কমেছে।
আজ দুপুর ১টায় শিক্ষামন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা করবেন। তারপরই শিক্ষার্থীরা নিজেদের ফল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা অনলাইনে জানতে পারবে।
গত ২ এপ্রিল শুরু হয় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলে ১৩ মে পর্যন্ত। আর ১৪ থেকে ২৩ মের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় ব্যবহারিক পরীক্ষা।
বেশ কয়েক বছর ধরে পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে ফাঁস নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা ছিল তুঙ্গে। কিন্তু এবার প্রশ্ন ফাঁসের কোনো ধরনের অভিযোগ প্রায় ছিল না বলেই চলে।
সূত্র : এনটিভি

আরও পড়ুন