দুই শিশুকে বিষ খাইয়ে মায়ের আত্মহত্যার চেষ্টা

আপডেট: 02:45:50 17/10/2017



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের মণিরামপুরে দুই সন্তানকে বিষ খাইয়ে নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বিউটি খাতুন নামে এক গৃহবধূ। স্বামীর পরকীয়ার কারণে বিউটি এই কাজ করেন বলে স্থানীয়দের ধারণা।
বিষক্রিয়ায় অসুস্থ হয়ে পড়া তিনজনই যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
ঘটনাটি রোববার রাতে মণিরামপুর উপজেলার ঝাঁপা গ্রামে ঘটে।  তবে আজ সোমবার তা প্রচার হয়।
বিউটি ওই গ্রামের মনিরুল ইসলামের স্ত্রী এবং একই উপজেলার মশ্মিমনগর গ্রামের আজগর আলীর মেয়ে।
বিউটির বোন পারভিন ও বিলকিস খাতুন সুবর্ণভূমিকে বলেন, 'আট বছর আগে মনিরুলের সাথে আমার বোনের বিয়ে হয়। মনিরুল পেশায় কৃষক। বোন এবং ভগ্নিপতির দাম্পত্য জীবন ভালোই কাটছিল। তাদের সংসারে মুজাহিদ (৮) ও মারিহা (২) নামে দুটো সন্তান রয়েছে। হঠাৎ করে রোববার রাতে কী কারণে বিউটি কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে তা আমাদের জানা নেই।'
ঝাঁপা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শামছুল আলম মন্টু সুবর্ণভূমিকে বলেন, 'মনিরুল ইসলাম সম্প্রতি একই গ্রামে একটি মেয়ের সাথে প্রেমজ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। স্বামীর পরকীয়ার বিষয়ে জানতে চাওয়ায় মনিরুল স্ত্রীকে মারপিট করে। মনের দুঃখে বিউটি ঘরে থাকা কীটনাশক দুই সন্তানকে খাইয়ে নিজেও তা পান করে। বিষয়টি টের পেয়ে স্বজনরা তাদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।'
হাসপাতালের মহিলা মেডিসিন ওয়ার্ডের সিনিয়র নার্স সুপ্রিয়া ডাক্তার সাইফুল ইসলামের উদ্ধৃতি দিয়ে সুবর্ণভূমিকে বলেন, 'বিউটিকে ওয়াশ করা হয়েছে; স্যালাইন চলছে। তিনি এখন আশংকামুক্ত।'
শিশু ওয়ার্ডের ইন্টার্ন ডাক্তার নাবিলা হোসেন সুবর্ণভূমিকে বলেন, 'কীটনাশক পানে অসুস্থ শিশু মুজাহিদ ও মারিহার শারীরিক অবস্থা অনেকটা ভালো। তারা আশংকামুক্ত।'
মণিরামপুর থানার ওসি মোকারম হোসেন সুবর্ণভূমিকে বলেন, 'এ রকম কোনো ঘটনা আমার জানা নেই।'

আরও পড়ুন