হিনা খানের বিরুদ্ধে এ কী অভিযোগ

আপডেট: 02:27:58 21/07/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তারকারা যে দামি দামি পোশাক ও গয়না পরেন, সেগুলো তাঁদের নিজেদের? আবার একই পোশাক আর গয়না এরপর আরেকটি অনুষ্ঠানে পরতে দেখা যায় না তাদের। এটা কীভাবে সম্ভব! এই তারকারা সত্যিই অনেক টাকার মালিক? এর পেছনে লুকিয়ে আছে রহস্য। আর তা বেশির ভাগ তারকা কখনোই প্রকাশ করতে চান না। তবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বড় বড় অনেক তারকা সংবাদমাধ্যমকে জানান অনুষ্ঠানে তারা যে প্রতিষ্ঠানের পোশাক আর গয়না পরেছিলেন, সেসব প্রতিষ্ঠানের নাম। আর এর বিনিময়ে এই তারকারা প্রতিষ্ঠান থেকে পান প্রচুর অর্থ। অনুষ্ঠান শেষে দ্রুততম সময়ের মধ্যে সেই পোশাক আর গয়না প্রতিষ্ঠানটিকে ফেরত দিতে হয়। কিন্তু যদি এই পোশাক আর গয়না কোনো তারকা ফেরত না দেন, তখন তা নিয়ে ঝামেলা পোহাতে হয় সেই তারকাকে। তার বিরুদ্ধে আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে। আইনি ঝামেলারও মুখোমুখি হতে হয়।
এবার ঠিক তেমনটাই ঘটেছে। ‘দাদাসাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ড ২০১৮’ দেওয়া হয় গত ২১ এপ্রিল। মুম্বাইয়ে অ্যান্ড্রুজ অডিটোরিয়ামে এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে দাদাসাহেব ফালকে ফাউন্ডেশন। অনুষ্ঠানে ‘এন্টারটেইনিং পারফরম্যান্স ইন রিয়েলিটি শো’ বিভাগে পুরস্কার পান হিনা খান। জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ‘বিগ বস’-এর জন্য তাকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়।
এ অনুষ্ঠানে লাল-কালো-সাদা রঙের স্টেটমেন্ট শাড়ির সঙ্গে সোনার হার পরেছিলেন হিনা খান৷ সোনার এই হারের দাম ১১ লাখ রুপি। পরে জানা যায়, সেদিনের অনুষ্ঠানে পরার জন্য হিনা খানকে শাড়িটি দিয়েছিল সত্য পাল ইন্ডিয়া আর গয়না দিয়েছিল অ্যাজোটিক। অনুষ্ঠান শেষে হারটি ফেরত দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হিনা খান তা এখনো ফেরত দেননি।
গয়না ফেরত পাওয়ার জন্য এই তারকার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় অ্যাজোটিক থেকে। জানা গেছে, এ সময় হিনা এই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের জানান, সেই হারটি তিনি হারিয়ে ফেলেছেন৷ কর্মকর্তারা তাকে হারের মূল্য দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।
প্রতিষ্ঠানটি অভিযোগ করেছে, এ সময় হিনা নাকি তাদের ভয় দেখিয়েছেন এবং হুমকি দিয়েছেন। এরপর গয়না আত্মসাতের অভিযোগ এনে হিনা খানকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এই আইনি নোটিসে বলা হয়েছে, ন্যূনতম সময়ের মধ্যে হিনা খানকে হারটি ফেরত দিতে হবে, নয়তো হারের মূল্য দিতে হবে। পাশাপাশি তাকে অভিযোগ স্বীকার করে এর জন্য ক্ষমা চেয়ে চিঠিও দিতে হবে।
তবে হিনা এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷ টুইটার তিনি লিখেছেন, ‘আমি তো অবাক! আমি কোনো আইনি নোটিস পাইনি। এখনো আমার বাড়িতে এ ধরনের কোনো কাগজ আসেনি। কিন্তু আমার বাড়ির বদলে তা সংবাদমাধ্যমের কাছে পৌঁছে গেল কীভাবে?’
হিনা খানের এ ঘটনা নিয়ে যারা সমালোচনা করছেন, তাদের উদ্দেশে তিনি লিখেছেন, ‘এসব করে কোনো লাভ হবে না।’
হিনা খানের প্রথম মিউজিক ভিডিও ‘ভাসুড়ি’ অবমুক্ত করা হয়েছে গত মঙ্গলবার। আজ শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত মিউজিক ভিডিওটি দেখা হয়েছে এক কোটি ১২ লাখ ৪২ হাজার বার। হিনা খান দাবি করেছেন, তার এই সাফল্যকে খাটো করার জন্য শত্রুরা এসব গুজব ছড়িয়ে বেড়াচ্ছে।
ছোট পর্দার এই তারকা ২০০৯ থেকে সাত বছর স্টার প্লাসের ‘ইয়ে রিস্তা কেয়া কেহলাতা হ্যায়’ সিরিয়ালে অভিনয় করেন। ২০১৭ সালে ‘ফিয়ার ফ্যাক্টর: খতরোঁ কে খিলাড়ি ৮’ এবং ‘বিগ বস ১১’ রিয়েলিটি শোতে প্রথম রানারআপ হন তিনি। এই দুটি অনুষ্ঠানই প্রচারিত হয় কালারস টিভিতে।
সূত্র : প্রথম আলো