নিহত পুলিশ ইনসপেক্টরের গ্রামের বাড়িতে মাতম

আপডেট: 01:49:08 20/03/2018



img
img

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : রাজধানীর মিরপুরের পীরেরবাগে সন্ত্রাসীদের সঙ্গে গোলাগুলিতে নিহত গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক জালাল উদ্দিনের গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর ইউনিয়নের ভোলপাড়া গ্রামে। সেখানে এখন চলছে মাতম।
তিনি ওই গ্রামের মৃত বিশারত মণ্ডল ও আয়েশা খাতুনের ছেলে। নিহত জালাল উদ্দীন পাঁচ ভাই এবং দুই বোনের মধ্যে সেজো। তার দুই মেয়ে রয়েছে। বড় মেয়ে তৃপ্তি ঢাকা ভিকারুননেসা নুন স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্রী। ছোট মেয়ে তুর্যা একই বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে।
পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সোমবার রাত ১২টার দিকে পীরেরবাগের তিনতলা একটি বাড়িতে কয়েকজন সন্ত্রাসী অবৈধ অস্ত্র জড়ো করেছে বলে পাওয়া সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। বন্দুকযুদ্ধের সময় পরিদর্শক জালালউদ্দিনের মাথায় গুলি লাগে। তাকে উদ্ধার করে স্কয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দুইটার দিকে তিনি মারা যান।
জালালের মৃত্যুর সংবাদ গ্রামের বাড়িতে আসার পর শুরু হয় মাতম। গ্রামের লোকজন তাদের বাড়িতে ভিড় করতে থাকেন। নিহত জালাল উদ্দীনের বৃদ্ধা মা ছেলের ছবি হাতে নিয়ে বার বার মুর্ছা যাচ্ছেন।
নিহত জালাল উদ্দীনের বাল্যবন্ধু গোলাম রসুল বলেন, ‘আমরা গোপালপুর হাইস্কুলে একসঙ্গে পড়তাম। জালাল দারুণ মেধাবী ছিল। চাকরিতে যোগ দেওয়ার পর কৃতিত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করার স্বীকৃতিস্বরূপ জালাল পুরস্কৃত হয়েছেন।’
কালীগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান খান বলেন, ‘আমাকে এখনো অফিসিয়ালি কিছু জানানো হয়নি। তবে মরদেহ গ্রামের বাড়িতে পাঠানোর সময় হয়তো আমাকে জানানো হবে।’

আরও পড়ুন