এমএম কলেজগেটে যুবক গুলিবিদ্ধ

আপডেট: 02:49:37 15/10/2017



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন (এম এম) কলেজের গেটে শহিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল (২৮) নামে এক যুবককে গুলি করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার রাত প্রায় সাড়ে দশটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।
শহিদুলের বাম হাতের কব্জিতে এক রাউন্ড গুলি বিদ্ধ হয়েছে। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তা বের করতে হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।
গুলিবিদ্ধ শহিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল শহরের রেলগেট পশ্চিমপাড়ার বিল্লাল খাঁর ছেলে। তিনি পেশায় ভাঙড়ি ব্যবসায়ী। পাশাপাশি তিনি যুবলীগের একজন কর্মী বলে দাবি করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শহরের খড়কী এলাকা থেকে পায়ে হেঁটে বাড়িতে ফিরছিলেন শহিদুল। এম এম কলেজের দক্ষিণ গেটের সামনে আলিমের চায়ের দোকানের কাছে পৌঁছুলে একটি মোটরসাইকেল এসে দাঁড়ায় সেখানে। মোটরসাইকেলটির চালক হেলমেট পরিহিত ছিল। পেছনে বসা দুইজনের মধ্যে একজন শহিদুলকে নাম ধরে ডাকে। শহিদুল পেছন ফিরতেই তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে একজন। এক রাউন্ড গুলি শহিদুলের বাম হাতের কব্জিতে বিদ্ধ হয়।
গুলিবিদ্ধ শহিদুল পড়ে গেলে সন্ত্রাসীরা ওই মোটরসাইকেলেই পালিয়ে যায়। পরে এক রিকশাচালক শহিদুলকে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে তাকে নিজ রিকশায় উঠিয়ে জেনারেল হাসপাতালে আনেন।
সুবর্ণভূমির প্রশ্নে শহিদুল দাবি করেছেন, মোটরসাইকেলের পেছনে থাকা দুই যুবক হলো রেলগেট কলাবাগান এলাকার সাগর ও রমজান। তারা মাদকের কারবারি।
ওই যুবকদের সঙ্গে তার কী নিয়ে বিরোধ তা খোলসা করেননি শহিদুল। তবে স্থানীয় একটি সূত্র বলছে, মাদক ব্যবসার দ্বন্দ্বের জের ধরে শহিদুলকে গুলি করেছে প্রতিপক্ষ।
যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত ডাক্তার ওয়াহেদুজ্জামান আজাদ সুবর্ণভূমিকে জানান, এক্স-রে করে দেখা গেছে, শহিদুলের হাতের কব্জিতে এক রাউন্ড গুলি রয়েছে। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে গুলি বের করতে হবে।
কোতয়ালী থানার পরিদর্শক তোফায়েল আহমেদ সুবর্ণভূমিকে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। গুলিবর্ষণকারী দুর্বৃত্তদের ধরতে পুলিশ এরই মধ্যে অভিযান শুরু করেছে।’

আরও পড়ুন