নোংরা পরিবেশে তৈরি হচ্ছে ‘সম্রাট চানাচুর’

আপডেট: 08:13:42 16/03/2018



img
img

আনোয়ার হোসেন, মণিরামপুর (যশোর) : মণিরামপুরে অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে বিষাক্ত রঙ মিশিয়ে চানাচুর তৈরির অভিযোগ উঠেছে। যদিও উৎপাদিত চানাচুরের মোড়কে বিএসটিআই-এর সিল ব্যবহার করা হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, কাঠের ব্যবহার্য ফার্নিচারের রঙ ব্যবহার করা হচ্ছে ওই চানাচুরে।
বহুদিন ধরে শরিফুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি উপজেলার সুন্দলপুর বাজারে কারখানা বসিয়ে ৫-৭ জন শ্রমিক কাজে লাগিয়ে চানাচুর উৎপাদন করছেন। উৎপাদিত চানাচুর ‘সম্রাট সুইট চানাচুর’ নামে বাজারে বিকোয়।
সম্প্রতি সুন্দলপুর বাজারে ‘সম্রাট সুইট চানাচুর’ কারখানায় গিয়ে দেখা যায়, তিনজন শ্রমিক চানাচুর প্রস্তুতের কাজে ব্যস্ত রয়েছেন। দেখা যায়, নোংরা পরিবেশে পাকা ফ্লোরের ওপর চানাচুর ভেজে রাখা হচ্ছে। দুইজন শ্রমিক বাদাম ভাজার কাজ করছেন। তারা বস্তার মুখ খুলে ধুলাবালি মিশ্রিত বাদাম টগবগে গরম তেলে ছাড়ছেন। যার মধ্যে পচা বাদামও রয়েছে। সেই বাদাম আবার চানাচুর ভাজার ওপর ফেলে খালি পায়ে বেলচা দিয়ে মেশাচ্ছেন আরেক শ্রমিক। কারখানার পরিবেশও বেশ নোংরা। এসময় গণমাধ্যম কর্মীর উপস্থিতি দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন ওই তিন শ্রমিক। এই প্রতিবেদকের কোনো প্রশ্নের জবাবও তারা দিতে চাননি।
স্থানীয়দের অভিযোগ, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে, স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর রঙ ব্যবহার করে চানাচুর তৈরির অভিযোগ বিভিন্ন মাধ্যমে বহুবার প্রশাসনকে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনো ফল আসেনি।
মোবাইল ফোনে কারখানার মালিক শরিফুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘চানাচুর তৈরিতে কোনো অনিয়ম হচ্ছে না। আমি বাইরে আছি, পরে আপনার সাথে দেখা করব।’
জানতে চাইলে মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) হোসাইন মুহাম্মদ আল-মুজাহিদ বলেন, ‘দ্রুতই ওই কারখানায় অভিযান চালানো হবে।’

আরও পড়ুন