ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে স্বাক্ষর না করার অনুরোধ

আপডেট: 09:31:50 20/09/2018



img

খুলনা অফিস : সাংবাদিক সমাজ, সম্পাদক পরিষদ, নাগরিক সমাজ ও দেশি-বিদেশি মানবাধিকার সংগঠনের প্রতিবাদ অগ্রাহ্য করে গণমাধ্যম ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতাবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংসদে পাশের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে এ বিলে স্বাক্ষর না করার জন্য রাষ্ট্রপতির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে ও মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন খুলনা-এমইউজে নেতারা।
রাষ্ট্রের অভিভাবক হিসেবে সংবিধান, গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাপরিপন্থী বিলটি সংসদে ফেরত পাঠিয়ে গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকারবিরোধী ধারা সংশোধনে প্রেসিডেন্ট ভূমিকা রাখবেন বলে আশা প্রকাশ করেন নেতারা।
বিএফইউজে সভাপতি রুহুল আমিন গাজী ও মহাসচিব এম আবদুল্লাহ এবং এমইউজে খুলনার সভাপতি মো. আনিসুজ্জামান, সহ-সভাপতি এহতেশামুল হক শাওন, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল হাসান হিমালয়, কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক রানা, বিএফইউজের সাবেক সহ-সভাপতি ড. মো. জাকির হোসেন, সাবেক নির্বাহী সদস্য শেখ দিদারুল আলম ও এহতেশামুল হক শাওন এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, ‘২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গঠিত এক দলীয় সংসদে স্টেকহোল্ডারদের আপত্তি ও সংশোধনী প্রস্তাব উপেক্ষা করে পাশ করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আমরা ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি। এ আইন সংবিধান ও মহান মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনার সঙ্গে সাংঘর্ষিক। গণতান্ত্রিক দেশেতো নয়ই, কোনো সভ্য সমাজে এ ধরনের আইনের কথা কল্পনাও করা যায় না। আইনটি সংসদে উপস্থাপনের সময় তথ্য-প্রযুক্তিমন্ত্রী যে প্রতারণামূলক বক্তব্য দিয়েছেন তা আমাদের স্তম্ভিত করেছে। তিনি সম্পাদক ও সাংবাদিকদের প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে বলে নির্জলা মিথ্যাচার করেছেন।’
বিবৃতিতে বলা হয়, ‘একদিকে প্রায় শত বছরের পুরনো অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের ঔপনিবেশিক অ্যানালগ আইনকে আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির যুগে টেনে আনা হয়েছে। অন্যদিকে, বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতার ও তল্লাশির ক্ষমতা পুলিশকে দিয়ে প্রকারান্তরে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে নিপীড়নের সুযোগ অবারিত করা হয়েছে। এমনকি গবেষণা কাজও এই আইনের কারণে হুমকির মুখে পড়বে। সাংবাদিক সমাজসহ দেশের বিবেকবান মুক্তচিন্তার মানুষ এই আইনে প্রতিনিয়ত হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হবেন।’ বিবৃতিতে আইনটি পুনর্বিবেচনার জন্য সংসদে ফেরত পাঠাতে প্রেসিডেন্টের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

আরও পড়ুন