কেশবপুরে কিশোরীর আত্মহত্যা

আপডেট: 02:23:03 21/09/2017



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের কেশবপুরে মমতাজ খাতুন (১৪) নামে এক কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।
বুধবার সকালে কেশবপুর উপজেলার দত্তনগর গ্রামে মমতাজ গলায় দড়ি দেয়। রাতে যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
মমতাজ কেশবপুর উপজেলার দত্তনগর গ্রামের আব্দুল জলিলের মেয়ে।
নানি রাবেয়া বেগম সুবর্ণভূমিকে বলেন, ‘বুধবার সকালে মমতাজ তার ছোট বোন সাথীর সঙ্গে মারামারি করছিল। এ নিয়ে মমতাজের মা তাকে গালমন্দ করেন। ক্ষোভে-অভিমানে মমতাজ ঘরে ঢুকে ওড়না দিয়ে আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। টের পেয়ে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে গ্রাম্য ডাক্তার ডেকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। কিন্তু অবস্থার অবনতি হতে থাকে মমতাজের। সন্ধ্যায় তাকে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানেও অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। রাত সাড়ে ৯টার দিকে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির কিছু সময় পর সে মারা যায়।’
হাসপাতালের মহিলা মেডিসিন ওয়ার্ডে কর্তব্যরত চিকিৎসক রুবিনা দেলোয়ার মমতাজের মৃত্যু নিশ্চিত করেন।

আরও পড়ুন