লোহাগড়ায় মঙ্গলবার থেকে কাত্যায়নী পূজা

আপডেট: 09:38:13 10/11/2018



img

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : আগামী মঙ্গলবার থেকে শ্রীশ্রীকাত্যায়নী পূজা। পাঁচদিনব্যাপী এই পূজাকে ঘিরে লোহাগড়ায় উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়েছে। চলছে মণ্ডপ নির্মাণ আর প্রতিমা রঙের কাজ।
লোহাগড়ায় কাত্যায়নী পূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মালম্বীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। আগামী ১৩ নভেম্বর মঙ্গলবার ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে শুরু হবে আনুষ্ঠানিকতা। ১৭ নভেম্বর বির্সজনের মাধ্যমে পূজা শেষ হবে।
এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন যে, লোহাগড়ায় প্রায় এক যুগেরও অধিক সময় ধরে কাত্যায়নী দেবীর পূজা-অর্চনা পালিত হয়ে আসছে। বর্তমান সময়ে লোহাগড়ায় কাত্যায়নী পূজা ঐতিহ্যে রূপ নিয়েছে। জেলার ইতিহাসে ঠাঁই করে নিয়েছে লোহাগড়ার ঐতিহ্যবাহী কাত্যায়নী পূজা। মাগুরার পর নড়াইলের লোহাগড়ায় শ্রী কাত্যায়নী পূজা জাঁকজমকের সঙ্গে পালিত হয়ে আসছে।
হিন্দু ধর্মীয় শাস্ত্র মতে, দ্বাপর যুগে ভগবান শ্রীকৃষ্ণ পৃথিবীতে আবির্ভূত হন। শ্রীকৃষ্ণরূপী স্বয়ং ভগবানকে পুত্র, বন্ধু, পতি এবং প্রভু রূপে পাওয়ার জন্য ব্রজবাসীগণ শ্রীশ্রীকাত্যায়নী দেবীর ব্রত পালন করেছিলেন। দ্বাপর যুগে কোনো এক হেমন্তের প্রারম্ভে পূর্ণসলিলা যমুনা নদীর তীরে মাসব্যাপী ব্রত ও পূজা অনুষ্ঠানের প্রচলন হয়। ব্রজবাসীগণ ব্রহ্ম মুহূর্তে যমুনা নদীতে স্নান করে যমুনা তীরে বালুকানির্মিত কাত্যায়নী মূর্তিতে ফুল, ফল ও অন্যান্য উপকরণ দ্বারা আরাধনা শুরু করেন। এভাবে এক মাস উপাসনার পর দেবী তুষ্ট হয়ে ব্রজবাসীগণকে অভিষ্ঠ ফল প্রদান করেন। অতঃপর পূজান্তে বালুকানির্মিত দেবী মূর্তি যমুনায় বিসর্জন দিয়ে ব্রজবাসীগণ মহাধুমধামে উৎসব পালন করেন। এরপর কাত্যায়নী দেবীর পূজা পালিত হয়ে আসছে।
এ বছর লোহাগড়ায় জয়পুর পরশমণি মহাশ্মশান, গন্ধবাড়িয়া, মাইট কুমড়া, কুন্দশী, কুন্দশী, নলদীর বৈকুণ্ঠপুর, কালাচাঁদপুর, মিঠাপুর, চাপুলিয়া, বলাডাঙ্গা, লাহুড়িয়ার কল্যাণপুর, ঝামারঘোপ, দিঘলিয়া ও ইতনাসহ ১২টি পূজামণ্ডপে কাত্যায়নী পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
এসব মণ্ডপগুলোতে চলছে সাজ-সজ্জার কাজ। প্রতিমাশিল্পীরা মনের মাধুরী মিশিয়ে কাত্যায়নী দেবীর মূর্তিতে রঙের আঁচড় দিয়ে চলেছেন। ব্যস্ত সময় পার করছেন আয়োজক কমিটির সদস্যরা।
উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি প্রবীরকুমার কুণ্ডু মদন জানান, নির্বিঘ্নে কাত্যায়নী পূজা উদযাপনের জন্য প্রস্তুতি প্রায় শেষের পথে। সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে এ পূজা পালনের জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
এদিকে, কাত্যায়নী পূজা উপলক্ষে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে লোহাগড়া থানার ওসি প্রবীরকুমার বিশ্বাস জানিয়েছেন।