ঝিনাইদহে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত’ নিহত

আপডেট: 01:42:54 18/07/2018



img

তারেক মাহমুদ, (কালীগঞ্জ) ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ভাতুড়িয়ায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আমিরুল ইসলাম পচা (৪৩) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এবারের ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে।
নিহত এই ব্যক্তিকে ‘ডাকাত দলের সদস্য’ বলে দাবি করেছে র‌্যাব। বন্দুকযুদ্ধে র‌্যাবের তিন সদস্য আহত হয়েছেন জানিয়ে বলা হয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাব-৬ ঝিনাইদহের কোম্পানি কমান্ডার এএসপি গোলাম মোর্শেদ বলছেন, হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ভাতুড়িয়ায় তারা চেকপোস্ট বসিয়েছিলেন। এসময় ডাকাতরা র‌্যাবকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে। পরে র‌্যাবও পাল্টা জবাব দিলে বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়। আধাঘণ্টা বন্দুকযুদ্ধ চলার পর ডাকাতরা পালিয়ে যায়। এরপর ঘটনাস্থল থেকে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য আমিরুল ইসলাম পচাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে হরিণাকুণ্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
র‌্যাবের এএসপির ভাষ্য, ঘটনাস্থল থেকে একটি শুটারগান, দুই রাউন্ড গুলি ও হাসুয়া উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত ডাকাত আমিরুলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় হত্যা, ডাকাতিসহ ১৩টি মামলা রয়েছে।
এর আগে গত ১১ জুলাই বুধবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে ঝিনাইদহের মহেশপুরে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নুরুল হোসেন নুরু (৪৫) নামের একজন নিহত হন।
তারও আগে ৭ জুলাই শনিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে ঝিনাইদহ শহরের পবহাটি এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দু’জন নিহত হন। সেখান থেকে র‌্যাব দুটি ওয়ান শুটারগান, দুই রাউন্ড গুলি, ৫৫ বোতল ফেনসিডিল, ১৫২ পিস ইয়াবা এবং একটি অ্যাপাচি মোটরসাইকেল উদ্ধারের দাবি করে। নিহতরা হলেন, জেলা শহরের বাঘাযতিন সড়কের রহিম বক্সের ছেলে সাজ্জাদুর রহমান (৪২) ও উদয়পুর এলাকার সিরাজ উদ্দীন লস্করের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (৩৫)।
ঝিনাইদহ শহর ও মহেশপুরে নিহত তিনজনই মাদক ব্যবসায়ী বলে র‌্যাব দাবি করেছিল।

আরও পড়ুন