ছিনতাইয়ের 'প্রমাণ পেয়ে' দুই পুলিশ গ্রেফতার

আপডেট: 01:09:25 22/02/2018



img

খুলনা অফিস :  ডুমুরিয়ায় গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে এক ব্যবসায়ীর নয় লাখ টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগে দুই পুলিশসহ চারজন গ্রেফতার হয়েছেন।
বুধবার রাতে ডুমুরিয়া থানা এবং সাতক্ষীরা জেলা থেকে এদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন, ডুমুরিয়া থানার এএসআই আবদুর রউফ বিশ্বাস ওরফে পল্টু, কনস্টেবল নাদিম, ট্রাক চালক মনির সরদার ও তার সহযোগী রাজু ঘোষ।
খুলনার পুলিশ সুপার নিজামুল হক মোল্লা জানান, বুধবার রাত দশটার দিকে ডুমুরিয়া থানা থেকে এএসআই আবদুর রউফ ও কনস্টেবল নাদিমকে গ্রেফতার করা হয়। একই সময়ে পৃথক অভিযানে গরু ব্যবসায়ীর ট্রাক চালক মনির সরদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে সাতক্ষীরা থেকে।
দুই পুলিশ সদস্যের কাছ থেকে ছিনতাই করা ছয় লাখ ৫৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান এসপি নিজাম।
পুলিশ সুপার জানান, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সাতক্ষীরা সদর উপজেলার নলকুড়া গ্রামের গরু ব্যবসায়ী গোলাম রসুল লিটন ডুমুরিয়া উপজেলার খর্নিয়া হাটে ২২টি গরু বিক্রি করে নয় লাখ ১৫ হাজার টাকা নিয়ে ট্রাকযোগে বাড়ি ফিরছিলেন। ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগরে মোটরসাইকেলযোগে আসা দুই ব্যক্তি ট্রাকের গতিরোধ করে নিজেদেরকে ডিবি পুলিশ পরিচয় দেন। তারা ট্রাকে 'মাদক আছে' দাবি করে তল্লাশি করতে থাকে। এরপর হঠাৎ তারা অস্ত্র দেখিয়ে গরু ব্যবসায়ীর কাছে থাকা  নয় লাখ ১৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে দ্রুত মোটরসাইকেলযোগে পালিয়ে যান।
এ ঘটনায় গরু ব্যবসায়ী গোলাম রসুল লিটন বাদী হয়ে ওই রাতেই ডুমুরিয়া থানায় মামলা করেন।
আটক করা ট্রাক চালক মনির সরদার সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কামালনগর গ্রামের মোকসেদ সরদারের ছেলে। রাজু ঘোষ সাতক্ষীরা সদরের পুরাতন সাতক্ষীরার স্বপন ঘোষের ছেলে।
গরু বহনকারী ট্রাকের চালক, স্বপন ঘোষ ও চালকের এক সহকারীর সঙ্গে যোগসাজসে এই দুই পুলিশ সদস্য ছিনতাই করেছেন বলে তদন্তে সত্যতা পাওয়ার পর তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে এসপি জানান।

আরও পড়ুন