চেয়ারম্যান পলাশ হত্যা মামলায় আসামি যারা

আপডেট: 03:59:26 18/02/2018



img

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারমান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক লতিফুর রহমান পলাশ হত্যার ঘটনার তিন দিন পর থানায় মামলা হয়েছে। গত শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে থানায় মামলাটি করেন নিহতের বড় ভাই ও জেলা পরিষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা সাইফুর রহমান হিলু।
মামলায় নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক কুমড়ি গ্রামের মৃত সালাম শরীফের ছেলে শরীফ মনিরুজ্জামান ওরফে মনি শরীফকে (৪৭) প্রধান আসামি করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিরা হলেন, ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত দিঘলিয়া ইউপি নির্বাচনে পরাজিত আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কুমড়ি গ্রামের মৃত বাচ্চু শেখের ছেলে শেখ মাসুদ পারভেজ ওরফে টাক মাসুদ, দিঘলিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও আখড়াবাড়িয়া গ্রামের মৃত হালিম খানের ছেলে ইমতিয়াজ আহম্মদ মাসুম, দিঘলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কুমড়ি গ্রামের মৃত হাতেম সরদারের ছেলে ওহিদুর রহমান সরদার, কুমড়ি গ্রামের মৃত সালাম শরীফের ছেলে প্রধান আসামি শরীফ মনিরুজ্জামানের ছোট ভাই শরীফ বাকিবিল্লাহ, বদির খানের ছেলে সোহেল খান, আকবর শেখের ছেলে খায়ের, বাবু, রওশন শেখ, মৃত বারিক শেখের ছেলে বনি শেখ, কোটো শেখ, মৃত সাহেব আলীর ছেলে হেদায়েত আলী, মৃত বাবু ফকিরের ছেলে নজরুল ফকির, ওলিয়ার মোল্যার ছেলে আবদুর রব মোল্যা ও শুকুর শেখের ছেলে রিপন শেখ।
লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শফিকুল ইসলাম রোববার দুপুরে সাংবাদিকদের জানান, নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার প্রধান আসামি শরীফ মনিরুজ্জামান ওরফে মনি শরীফকে শনিবার দিবাগত রাতে ঢাকার একটি আবাসিক হোটেল থেকে গ্রেফতার করেছে নড়াইল জেলা পুলিশ। রোববার সকালে তাকে লোহাগড়া থানায় সোপর্দ করা হয়। এর আগে গত শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে তার ছোট ভাই শরীফ বাকি বিল্লাহকে (৩৩) কুমড়ি গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে।
এদিকে, চাঞ্চল্যকর এ হত্যার প্রতিবাদ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে রোববার দুপুরে লোহাগড়া পৌর ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যৌথ উদ্যোগে লক্ষ্মীপাশা পৌর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে প্রতিবাদ সভা হয়।
সভায় উপজেলা আ’লীগের সভাপতি সিকদার আব্দুল হান্নান রুনুর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হাফিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আজাদ সিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুরুল করিম মুন, পৌর সভাপতি কাজী বনি আমিন প্রমুখ।
সভায় বক্তারা এজাহারভুক্ত আসামিদের অবিলম্বে আটক ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।
গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে গুলি করে ও কুপিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান পলাশকে হত্যা করে দুবৃর্ত্তরা।

আরও পড়ুন