মণিরামপুরে শিক্ষকের পিটুনি, ছাত্রীর বিষপান

আপডেট: 07:31:00 12/11/2017



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুরে সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া এক ছাত্রী বিষপান করেছে। মনোহরপুর দাখিল মাদরাসায় ইকবাল হোসেন নামে এক শিক্ষকের পিটুনির শিকার হয়ে সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।
রোববার বেলা ১২টার দিকে ওই ছাত্রী বিষপান করে। তবে চিকিৎসা নেওয়ার পর এখন সে আশঙ্কামুক্ত। মাদরাসার সভাপতি শামিম আক্তার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
স্বজন ও স্থানীয়রা জানান, রোববার সকালে ওই ছাত্রী মাদরাসায় যায়। এরপর অন্য বান্ধবীদের সঙ্গে কমন রুমে গল্পের এক পর্যায়ে সে জোরে কথা বলে ওঠে। তা শুনতে পান মাদরাসার গণিতের শিক্ষক ইকবাল হোসেন। তিনি অফিস কক্ষ থেকে বেত এনে ওই ছাত্রীকে পেটান। শিক্ষকের হাতে মার খেয়ে বাড়ি চলে যায় ওই ছাত্রী। বাড়ি গিয়েই লজ্জায়-ক্ষোভে সে বিষ পান করে। ঘটনা টের পেয়ে বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে পাঁচাকড়ি নয়া বাজার-সংলগ্ন আলাউদ্দীন নামে এক পল্লী চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসা নেওয়ার পর ওই ছাত্রী সুস্থ হয়ে ওঠে।
এদিকে খবর পেয়ে গণমাধ্যমকর্মীরা ওই মাদরাসায় গেলে অভিযুক্ত শিক্ষক ইকবাল হোসেন ঘটনা স্বীকার করেন। বলেন, ‘ওই ছাত্রী জোরে খারাপ শব্দ করায় তাকে দুটো বেতের বাড়ি দেওয়া হয়েছে।’
প্রতিষ্ঠানের সুপার শহিদুল ইসলাম মাদরাসায় না থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে মাদরাসার সভাপতি শামিম আক্তার বলেন, ‘আমি খুলনায় আছি। ঘটনাটি শুনে শিক্ষকদের বলেছি, ওই ছাত্রীকে চিকিৎসা করাতে। চিকিৎসা নেওয়ার পর এখন সে সুস্থ আছে।’

আরও পড়ুন