‘‘ঝিনাইদহের ‘জঙ্গি আস্তানায়’ প্রচুর বিস্ফোরক’’

আপডেট: 01:42:00 22/04/2017



img
img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : ঝিনাইদহের সন্দেহভাজন বাড়িটিতে প্রাথমিক অভিযান শেষ করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। বাড়িটির মধ্যে ‘প্রচুর বিস্ফোরক’ আছে বলে গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান।
রাত নয়টা পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বাড়িটি ঘিরে রেখেছে। এসপি জানান, বাড়ির মধ্যে গ্রেনেডসহ প্রচুর বিস্ফোরক আছে। ঢাকা থেকে বোম্ব ডিসপোজাল টিম আসছে। তারা এসে বিস্ফোরকগুলো অপসারণ ও নিষ্ক্রিয় করবে। এর পর অভিযানের সমাপ্তি ঘটবে।
এর আগে আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি গ্রামের একটি বাড়িতে অভিযান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তাদের ধারণা, বাড়িটি জঙ্গি আস্তানা।
বাড়িটিতে কোনো জঙ্গির সন্ধান পাওয়া না গেলেও প্রাথমিক অভিযানে সেখান থেকে একটি পিস্তল, কিছু বিস্ফোরক, গ্রেনেড ও সুইসাইড ভেস্ট পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন অভিযানকারীরা। এর আগে শুক্রবার বিকেল ৫টা থেকে বাড়িটি ঘেরাও করে রাখেন আইনশৃংখলা বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য।
খবর পেয়ে সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে ঝিনাইদহে আসে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের একটি টিম। যার নেতৃত্ব দিচ্ছেন সিটিইউ-এর ঢাকা মহানগর স্পেশাল অ্যাকশন গ্রুপের অতিরিক্ত উপকমিশনার ছানোয়ার হোসেন।
ঘটনাস্থলে আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল সদস্য অবস্থান নেন। সাংবাদিকদের নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করতে বলা হয়। এছাড়া বিকেল থেকে গ্রামের মোড়ে মোড়ে পুলিশের বিশেষ টিম সোয়াট, র্যা বসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী অন্যান্য বাহিনীর সদস্যরা অবস্থান নেন। সাদা পোশাকেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনেক সদস্যকে পুরো এলাকায় দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়।
ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, বাড়িটির মালিক পোড়াহাটি গ্রামের আব্দুল্লাহ। তিনি পোড়হাটি ধানহাড়িয়া চুয়াডাঙ্গা গ্রামের আব্দুল লতিফের জামাই।
সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানিয়েছিলেন, শুক্রবার বিকেল পাঁচটার পর ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে ঝিনাইদহের সদর উপজেলার পোড়াহাটি গ্রামের কয়েকটি বাড়ি ঘিরে রাখেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ওই এলাকার একটি বাড়িতে ‘জঙ্গি আস্তানা’ রয়েছে বলে ধারণা করা হয়। পরে সেখানে অভিযান চালিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে বাড়িটির ভেতর একটি পিস্তল ও বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ কিছু বিস্ফোরক পাওয়া গেছে।

সর্বশেষ : রাত সাড়ে দশটার দিকে সন্দেহজনক জঙ্গি আস্তানা পোড়াহাটি এলাকায় গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন পুলিশের খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি দিদার আহমেদ। তিনি জানান, অভিযান এখনই শেষ নয়। ঢাকা থেকে বোম্ব ডিসপোজাল টিম আসছে। তারা আসার পর শনিবার সকালে আবার অভিযান শুরু হবে। তখন আপনারা বিস্তারিত জানতে পারবেন।
এখন সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও র‌্যাব সদস্য অবস্থান করছেন।
এর আগে সন্ধ্যায় পুলিশের পক্ষ থেকে এলাকায় মাইকিং করা হয়। মাইকে  নিরাপত্তার স্বার্থে স্থানীয় বাসিন্দাদের বাইরে বের হতে নিষেধ করা হয়। ফলে স্থানীয়দের মধ্যে চরম আতঙ্ক দেখা দেয়।

আরও পড়ুন