সাংবাদিকদের তালাবদ্ধ করে রাখলেন নার্সিং ইনস্টিটিউট কর্মকর্তা

আপডেট: 08:37:41 29/05/2019



img

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্নীতি তদন্তের সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে বুধবার সাংবাদিকদের তালাবদ্ধ করে রাখেন যশোর নার্সিং ইনস্টিটিউটের ইন্সট্রাক্টর সেলিনা ইয়াসমিন পুষ্প।  ওই সময় নারী শিক্ষার্থীদের ডেকে সাংবাদিকদের হেনস্তা করারও হুমকি দেন তিনি।
 নার্সিং ইনস্টিটিউট ইন্সট্রাক্টরের দুর্নীতি তদন্তের সংবাদ সংগ্রহে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন যশোরে গণমাধ্যমকর্মীরা। বুধবার (২৯ মে) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে যশোর নার্সিং ইনসটিটিউটে এ ঘটনা ঘটে।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত সংবাদকর্মীরা জানান, যশোর নার্সিং ইনস্টিটিউটের ইন্সট্রাক্টর সেলিনা ইয়াসমিন পুষ্পের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্তে নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর থেকে দুই সদস্যের একটি তদন্ত দল বুধবার সেখানে যায়। খবর পেয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা নার্সিং ইনস্টিটিউটে যান। তবে সাংবাদিকরা পৌঁছার আগেই তদন্ত কমিটি সেখান থেকে চলে যায়।
সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্তের কারণ জানতে ইনসট্রাক্টরের কক্ষে গেলে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন এবং ইনসটিটিউটের প্রধান ফটকে তালা দিয়ে সাংবাদিকদের আটকে রাখেন। নারী শিক্ষার্থীদের ডেকে সাংবাদিকদের হেনস্তা করারও হুমকি দেন তিনি।
পরে খবর পেয়ে যশোরের সাংবাদিক নেতারা গিয়ে অবরুদ্ধ সহকর্মীদের উদ্ধার করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে সাংবাদিকদের কাছে ক্ষমা চান অভিযুক্ত ইনস্ট্রাক্টর সেলিনা ইয়াসমিন পুষ্প।
বিষয়টি জানতে পেরে যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবুল কালাম আজাদ লিটু নার্সিং ইনস্টিটিউটে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।
তিনি বলেন, পুষ্পের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত দল আসার বিষয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে আমি তাদেরকে অভিযুক্ত ইনস্ট্রাক্টরের কাছে যেতে বলি। সেখানে গেলে তাদেরকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে বলে জানতে পেরেছি।
নার্সিং ইনস্টিটিউট তার আওতায় না থাকায় তিনি বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। একইসঙ্গে এ ঘটনার বিচারও দাবি করেন যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক।

আরও পড়ুন