লোহাগড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

আপডেট: 04:37:11 12/06/2018



img

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : লোহাগড়ায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।
ওই নারীর নাম রুমকি বেগম। তিনি লোহাগড়া শহরের নজরুল শেখের মেয়ে। ঘটনার পর পরই অভিযুক্ত স্বামী আমিনুল ইসলামসহ পরিবারের লোকজন পালিয়ে গেছেন।
ব্যবসায়ী নজরুল শেখ অভিযোগ করে বলেন, ২০১২ সালে উপজেলার মহিষাপাড়া গ্রামের আবদুর রশিদের ছেলে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী আমিনুল ইসলামের (৩৫) সঙ্গে তার মেয়ে রুমকির (২৬) বিয়ে হয়। বিয়ের পর রুমকির একটি ছেলেসন্তান জন্ম নেয়। বেশ ভালোই চলছিল তাদের সংসার। সম্প্রতি আমিনুল ইসলাম আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরে আসেন। দেশে ফিরে আমিনুল ইসলাম মাদক সেবনসহ নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়েন। এ নিয়ে আমিনুল ও রুমকির মধ্যে দাম্পত্য কলহ চরমে ওঠে। এসব বিষয় নিয়ে রুমকি প্রতিবাদ করলে স্বামী আমিনুল তাকে প্রায়ই শারীরিক নির্যাতন করে আসছিলেন। এর জের ধরে গত সোমবার সন্ধ্যায় আমিনুল কৌশলে রুমকিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখে রুমকি আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করেন।
খবর পেয়ে সোমবার রাতেই লোহাগড়া থানা পুলিশ রুমকির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মঙ্গলবার সকালে নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠায়।
এ ঘটনায় লোহাগড়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত আমিনুলকে পাওয়া যায়নি।
তবে তার বড় ভাই ব্যবসায়ী কচি মোবাইল ফোনে দাবি করেন, ‘রুমকিকে হত্যা করা হয়নি। সে আত্মহত্যা করেছে।’
এ ব্যাপারে লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে রুমকির মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

আরও পড়ুন