বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন মাগুরা সরকারি বালিকা বিদ্যালয়

আপডেট: 05:22:12 09/04/2016



img

মাগুরা প্রতিনিধি : মাগুরায় তুমুল বিতর্ক, যুক্তি-পাল্টা যুক্তি তর্কের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে বিএফএফ সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক প্রতিযোগিতার চতুর্থ আসর। মাগুরা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবারের প্রতিযোগিতায় জেলার শ্রেষ্ঠত্ব দখল করে বিভাগীয় পর্যায়ে অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করেছে।
মাধ্যমিক পর্যায়ের সাতটি স্কুল নিয়ে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। মাগুরা শহরের কফি হাউজ কনভেনশন সেন্টারে শনিবার সকাল নয়টায় প্রতিযোগিতা শুরু হয়। সেমিফাইনালে মাগুরা আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়কে পরাজিত করে প্রথম দল হিসেবে সরকারি বালিকা বিদ্যালয় ফাইনালে ওঠে। অপর দিকে তর্ক-বিতর্ক ও তুমুল উত্তেজনাকর পরিবেশের মাঝ দিয়ে ন্যূনতম নম্বরের ব্যবধানে দুধ মল্লিক বালিকা বিদ্যালয়কে পরাজিত করে ফাইনালে ওঠে মাগুরা পুলিশ লাইনস মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
ফাইনালে দুটি দলই চমৎকার উপস্থাপনা, শুদ্ধ উচ্চারণ ও বাচনভঙ্গি, তথ্য উপস্থাপন এবং যুক্তি খ-নের মাধ্যমে বিচারকসহ উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের বিমোহিত করেন। বিচারকম-লীর সম্মিলিত বিবেচনায় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। তবে শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হন রানারআপ পুলিশ লাইনস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বক্তা অন্তরা ইসলাম।
প্রতিযোগিতা শেষে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ জেলা শাখার সভাপতি সৈয়দ বারিক আনজাম বরকির সভাপতিত্বে মাগুরা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রুস্তম আলী ফাইনালে বিজয়ী ও বিজিত দলের সদস্যদের হাতে ক্রেস্ট ও সনদপত্র তুলে দেন। এ সময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাগুরা আদর্শ কলেজের উপাধ্যক্ষ কাবিয়ার রহমান, ডেইলি অবজারভারের সাংবাদিক হোসেন সিরাজ, অধ্যাপিকা রেশমা আক্তার প্রমুখ।
বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন সাংবাদিক শামীম খান, শিক্ষক সাংবাদিক খান রকিবুল হক দিপু, রবীন্দ্রসংগীত সম্মিলন পরিষদের সভাপতি খান মাজহারুল হক দিপু, কবি ও সাংবাদিক সাগর জামান, প্রভাষক দেলোয়ার হোসেন, সাংবাদিক রূপক আইচ।
চ্যাম্পিয়ন সরকারি বালিকা বিদ্যালয় দলের বিতার্কিতরা হলো, তামিমা তাসনিম, কানিজ ফাতেমা ও মাবিয়া সুলতানা। রানারআপ দলে অংশ নেয় অন্তরা ইসলাম, মাহিমা গাজী এবং নিশাত রহমান।
সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন, বর্তমান বাস্তবাতায় দৈনিক সমকালের এ প্রতিযোগিতার আযোজন তাৎপর্যপূর্ণ। যে কারণে সমকালের এ আয়োজনের ধারাবাহিকতা ধরে রাখার জন্য স্থানীয়দের এগিয়ে আসতে হবে। এ লক্ষে জেলায় ডিবেটিং ক্লাব গড়ে তুলে শিক্ষার্থীদের নিয়মিত প্রশিক্ষণ ও প্রতিযোগিতার আযোজন করতে হবে।
(এবি/একে/০৯.০৪.১৬)

আরও পড়ুন